কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় ইট বোঝাই ট্রাক্টারের চাপায় ১ যুবক নিহত হয়েছে। প্রতিবাদে এলাকাবাসী কুমিল্লা- মিরপুর সড়ক ৩ ঘন্টা অবরোধ করে রাখে।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শিরা জানায়, রবিবার সকাল ১১টায় উপজেলার মিরপুর কুমিল্লা সড়কের ষাটশালা পূর্বপাড়া শাহ পরান মার্কেটের পাশে ব্রিজের উপর বসে চা খাচ্ছিল সোহেল, সোজন,শান্ত,ও বাসির। এসময় পশ্চিম দিক থেকে লাইসেন্স বিহীন অতিরিক্ত ইট বোঝাই একটি ট্রাক্টার দ্রুত গতিতে এসে ব্রিজে বসে থাকা ছেলেদের চাপা দিয়ে পাশের খালে ফেলে দেয়। এলাকাবাসী এসে একই এলাকার ইব্রাহিমের ছেলে মোঃ বাসির (২২) কে উদ্ভার করে ব্রাহ্মণপাড়া সরকারী হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালে কর্তব্যরত চিক্ৎিসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

প্রত্যক্ষদর্শী সোহেল, সোজন, শান্ত এ প্রতিনিধিকে জানায়, পশ্চিম দিক থেকে আসা ট্রাক্টরটির গতি ছিল অনেক বেশী যার কারনে ব্রিজের উপর এসে ট্রাক্টরটি লাফ দিলে কম বয়সী চালক এটি নিয়ন্ত্রন করতে পারেনি। আমরা ৩ জন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ব্রিজ থেকে পানিতে পরে জীবন রক্ষা করি, কিন্তু বাসিরের উপর ট্রাক্টরের চাকা উঠে গিয়ে বাসিরের মাথায় এবং পিঠে প্রচন্ড আঘাত পাওয়ায় তার শেষ রক্ষা হলনা। এ সময় মুরাদনগর এলাকার দুলাল মিয়ার ছেলে ড্রাইভার মোঃ মালু (১৭) পালিয়ে যায়। একই এলাকার মৃত শহিদ মিয়ার ছেলে হেলপার রুহুল আমিন (১৭) কে আটক করে এলাকাবাসী। ঘটনার পর থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত ওই এলাকার কয়েক হাজার মানুষ রাস্তায় গাছ ও ইট ফেলে কুমিল্লা-মিরপুর সড়ক বন্ধ করে রাখে। এ সময় রাস্তার দু-পাশে লম্বা যানজটের সৃষ্টি হয়। এলাকাবাসী বাসির হত্যার বিচারের দাবিতে মিছিল করে । তারা বাসিরের পরিবারকে ক্ষতিপূরন দেবার দাবি জানায়। এবং মিরপুর থেকে চান্দলা পর্যন্ত সড়কে গতিরোধক দেবার দাবি জানায়।

এছাড়া সড়কে যেন অবৈধ ট্রাক্টার না চলতে পারে সেজন্য প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন। খবর পেয়ে ব্রাহ্মণপাড়া থানার অফিসার ইনচার্য
আজম উদ্দিন মাহমুদ, ওসি তদন্ত মোঃ জাকির হোসেন, এস আই ফয়সাল মাহমুদ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করেন। লাশের সোরত হাল রির্পোট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: