আশিকুর রহমানঃ কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় দূর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে থানায় মামলার করায় বাদী পক্ষের লোকের বসত ঘর আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে বিবাদী পক্ষের লোকজন। ঘটনাটি উপজেলার মালাপাড়া ইউনিয়নের রামনগর পূর্বপাড়া গ্রামে গত শনিবার মধ্যরাতে ঘটিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এই ব্যাপারে এলাকাবাসী ও রামনগর পূর্বপাড়া গ্রামের নোয়াব আলীর ছেলে হামলায় আহত আব্দুল হালিম জানান, গত শনিবার সকালে আমি ও আমার বড় ভাই রামনগর পূর্বপাড়া গ্রামে একটি দোকানের সামনে গেলে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে উৎ পেতে থাকা একই গ্রামের মৃত ওয়াছ মিয়ার ছেলে নজরুল ইসলাম ও তাহার ভাই অহিদ মিয়া, রফিক মিয়া, স্বপন মিয়া এবং আঃ সালামের ছেলে জামাল হোসেন, মৃত সুলতান মিয়ার ছেলে সোলেমান মিয়া, মৃত সরু মিয়ার ছেলে মনিরুল ইসলাম মৃত সুলতান মিয়ার ছেলে জসিম উদ্দিন সহ অজ্ঞাত আরো ৩/৪ জন লোক হাতে দা, ছেনা ও লাঠি নিয়ে আমরা কিছু না বুঝার আগেই আমি ও আমার ভাই আবদুল আলীম এর উপর এলোপাতারি হামলা চালিয়ে কিল ঘুষি, ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আমাদেরকে গুরত্বর আহত করে। এ অবস্থায় আমাদের দুই ভাইয়ের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এসময় এলাকাবাসী আমাদের উদ্ধার করে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এই ব্যপারে আমার ভাই আহত আবদুল আলীমের স্ত্রী নার্গিস আক্তার আট জনকে অভিযোক্ত করে ব্রাহ্মণপাড়া থানায় একটি মামলা করে। মামলার সূত্র ধরে একই দিন মধ্যরাতে মৃত ওয়াছ মিয়ার ছেলে মামলার বিবাদী নজরুল ইসলাম গংরা আহত আব্দুল হালিম ও আব্দুল আলীমের কাকা কাশেম মিয়ার একটি বসত ঘর আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয়। পরে এলাকা বাসী দীর্ঘ চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। এতে বসত ঘর ও ঘরে থাকা বিভিন্ন আসবাবপত্র অগ্নিকান্ডে পুড়ে প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়।

এই ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই যুযুৎসু যশ চাকমা জানান, মামলার বাদীর বাড়ীতে আগুন লাগার বিষয়টি আমি শুনেছি এবং মামলার বিবাদী মৃত ওয়াছ মিয়ার ছেলে স্বপন মিয়াকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: