কুমিল্লার মুরাদনগরে একদিনে সর্বোচ্চ ৭জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। ২৪ঘন্টায় ৭জনসহ একই পরিবারের মোট ৯জন সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মুহাম্মদ নাজমুল আলম।

বিজ্ঞাপন

ঐ পরিবারের বসবাস করা বাড়ীসহ উপজেলার নবীপুর পূর্ব ইউনিয়নের বাখরনগর পশ্চিম পাড়ার পুরো মহল্লাটি লকডাউন করেছে প্রশাসন। এনিয়ে মুরাদনগরে মোট করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাড়িয়েছে ১৯জনে। গত ৫ই মে উপজেলার বাখরনগর গ্রামের পশ্চিমপাড়ায় দুজন মহিলার করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর সেই ৬ই মে পরিবারের বাকী সদস্যসহ আশেপাশের বেশ কয়েকজনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠনো হয়। ৮ই মে শুক্রবার রাতে এই পরিবারের আরো ৭জনের করোনা ভাইরাস রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

এর আগে উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল গ্রামে একজন, রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউনিয়নের কাঠালিয়াকান্দা গ্রামের এক ইউপি সদস্যসহ একই পরিবারের পাঁচজন, রামচন্দ্রপুর বাজার সংলগ্ন আরো একজন ইউপি সদস্য, পাহাড়পুর ইউনিয়নের পান্তি গ্রামে একজন, সুরানন্দি গ্রামের একজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়। অপরদিকে রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউনিয়নের কাঠালিয়াকান্দা গ্রামের একই পরিবারের ৫জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে দুজন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: মুহাম্মদ নাজমুল আলম।