ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার চেয়ারম্যান এড মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল বলেন, ২০৪১ সালে বাংলাদেশ একটি উন্নত দেশে পরিণত হবে। তাই আমাদের সন্তানদের স্বাস্থ্যঝুঁকি রোধে যেন বিষমুক্ত ও নিরাপদ খাদ্য গ্রহন করতে পারে এবিষয়ে সকলকে সচেতন থাকতে হবে। বর্তমানে অনেক কৃষক অধিক ফলনের মোহে কৃষি উৎপাদন প্রক্রিয়ায় সার-কীটনাশক অযথা ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রয়োজনীয় এবং অপ্রয়োজনীয় কীটনাশকের ব্যবহার বেড়েছে বহু গুণ। অননুমোদিত এবং মাত্রাতিরিক্ত কীটনাশকও ব্যবহার করা হচ্ছে। গ্রোথ হরমোন ব্যবহার করা হচ্ছে। অধিক মুনাফার লোভে এসব খাদপণ্যে ক্ষতিকর বিষাক্ত রাসায়নিক ও ভেজালের মিশ্রণ করে থাকে, যা আমাদেরকে ধীরে ধীরে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে এবং আগামী প্রজন্ম বিভিন্ন গুরুতর স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে বড় হচ্ছে।

সোমবার সকালে কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে কৃষক কৃষাণীদের মাঝে বিনামূল্যে সবজি চারা সহ কৃষি উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলার চেয়ারম্যান এড মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল এসব কথা বলেন।

কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা কৃষি অফিসের তত্ত্বাবধানে সোমবার (২ডিসেম্বর) আদর্শ সদর উপজেলা মিলনায়তনে প্রান্তিক কৃষক-কৃষানীদের মাঝে কৃষি উপকরণগুলো বিতরণ করা হয়। ১৮০ জন কৃষক-কৃষানীদের মাঝে সবজি চারাসহ বিনামূল্যে কৃষি উপকরণ বিতরণ করা হয়। উপকরণগুলোর মধ্যে ছিল সার, বীজ ও পেঁপে, বেগুন, টমেটোর চারা।

আদর্শ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিয়া আফরিন’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলার চেয়ারম্যান এড.আমিনুল ইসলাম টুটুল। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো.তারিকুর রহমান জুয়েল। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি অফিসার মো.মুশিউল ইসলাম। এসময় কৃষি উপ-সহকারী কর্মকর্তা শেখ আলাউদ্দিনের উপস্থাপনায় আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার আব্দুল আজিজ, স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রকল্প কর্মকর্তা রিপন আর্চায্য, সিনিয়র কৃষি উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. খলিলুর রহমান।