হোমনায় তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ জনতার হাতে আটক ধর্ষক সুভাস

হোমনা প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার হোমনার দুলালপুরে তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে সুভাস চন্দ্র দাস নামের এক পল্লী চিকিৎক।

জানা যায়, সোমবার দুপুরে সুভাস সিভিটের প্রলোভন দেখিয়ে তার ফার্মেসীর ভেতরে নিয়ে এই মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। জনতার হাতে আটক ধর্ষক সুভাস উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের ডাক্তার রাজেন্দ্র চন্দ্র দাসের ছেলে ও দুলালপুর পোস্ট অফিসের পোস্ট মাস্টার বলে জানান স্থানীয় লোকজন।

ধর্ষীতার পরিবারের অভিযোগ, উপজেলার দুলালপুর ইউনিয়নের সাপলেজী গ্রামের দুলালপুর সরকা‌রি প্রাথ‌মিক বিদ্যাল‌য়ের তৃতীয় শ্রে‌ণির ছাত্রী ছদ্ম নাম (রানী) সে।

সোমবার দুপুরে বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফেরার পথে পথিমধ্যে লম্পট পল্লী চিকিৎসক ছাত্রীটিকে সি‌ভিট খাওয়া‌নোর প্র‌লোভন দে‌খি‌য়ে তার ফার্মেসীতে ডেকে নেয় এবং ধর্ষণ করে।

প‌রে ভিকটিম চিৎকার দিতে চাইলে তাকে ভয়‌ভীতি দে‌খি‌য়ে কাউকে না বলতে নিষেধ করে সুভাস। কিন্তু বাড়িতে ফিরার পর মেয়েটির গোপনাঙ্গে তীব্র ব্যথা হলে বিষয়‌টি তার মাকে জানায় ভিকটিম।

এই খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত লোকজন সুভাস‌কে আটক ক‌রে গণধোলাই দেয়। রাত আটটার দিকে অবস্থা বেসামাল হয়ে পড়লে স্থানীয় চেয়ারম্যান মোঃ জসিম উদ্দিন সওদাগর থানা পুলিশকে খবর দিয়ে ধর্ষককে পু‌লি‌শে সোর্পদ ক‌রেন। বর্তমা‌নে ভিক‌টিম হোমনা উপ‌জেলা স্বাস্থ্য ক‌মপ্লে‌ক্সে চি‌কিৎসাধীন এবং ধর্ষক সুভাষ পু‌লি‌শ হেফাজ‌তে র‌য়ে‌ছে। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে হোমনা থানার পুলিশ বলেন, ‘আমরা আসামীকে আটক করেছি। মামলার প্রস্তুতি চলছে’।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ