বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারীর এ পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং এলজিআরডি মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলামের নির্দেশে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার খিলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে বিনাপারিশ্রমিকে ধান কেটে কৃষকের ঘরে তুলে দিয়েছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। হতদরিদ্র কৃষকরা শ্রমিক সঙ্কটে পড়ায় এমন উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হয়েছে বলে জানান তারা।

শুক্রবার (২৫ এপ্রিল) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কৃষকের পাশে দাঁড়ানোর এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হয়। যার মধ্যে শাহজাহান মিয়ার ২০ শতক, আবুল হোসেনর ৪২ শতক, মোহাম্মদ মোস্তফার ১৮ শতক, অহিদুর রহমানর ১২ শতক, খোকন মিয়ার ১৮ শতক, এনায়েত হোসেনের ৩০ শতকসহ প্রায় দেড়’শ শতক জমির ধান কেটে দেন নেতাকর্মীরা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন মনোহরগঞ্জ উপজেলার খিলা ইউনিয়নের ০১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ বাবুল মিয়া, আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ আলমগীর হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সানাউল্লাহ মজুমদার, সিরাজুল হক, বদিউল মজুমদার, বাবর হোসেনসহ ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য সোহেল।
এছাড়াও কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক ও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মোঃ নাজমুল হাসান বাপ্পি, মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক আতিকুর রহমান মজুমদার, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান সুজন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইমুন দুলাল শুভ, বোরহান, জুয়েল, শরীফ, রাশেদ, শাকিল, হ্নদয়, তানভীর, শাওন, রিয়াজ,হাসান, জিতু, দিপু, মিশুসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

০১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার বাবুল মিয়া বলেন, জনগণের দুঃখে পাশে থাকা এ দায়িত্ববোধ থেকেই মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করি সবসময়। আমি চাই আমার এলাকার একটি মানুষও কষ্টে না থাকুক। কারো কষ্ট আমার সহ্য হয়না। করোনা পরিস্থিতিতে মানুষ শুধু আতঙ্কেই পড়েনি। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে শ্রমিক না আসায় কৃষকদের চরম দুর্দিন যাচ্ছে। শ্রমিক সংকটে তারা ধান কেটে বাড়ি আনতে পারছেন না। শ্রমজীবী মানুষরাও কর্মহীন হয়ে পড়েছে। আমাদের নেতা এলজিআরডি মন্ত্রি মহোদয়ের নির্দেশনায় মানুষের পাশে থেকে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করে যাচ্ছি। কৃষকদের ধান কাটতে পেরে নিজের কাছেও ভালো লাগছে। তাছাড়া এলাকার যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের ভাইয়েরা আমাকে এমন কাজে সহযোগিতা করেছেন। তাদের কাছেও কৃতজ্ঞ। ইনশাআল্লাহ গরীব-দুঃখীদের পাশে অতীতের ন্যায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশ অনুযায়ী এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক ও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মোঃ নাজমুল হাসান বাপ্পি বলেন, আমাদের ওয়ার্ড মেম্বার একজন জনবান্ধব নেতা। তিনি তার ওয়ার্ডের যে কোন সমস্যায় সবার আগে এগিয়ে আসেন। করোনা পরিস্থিতিতে তিনি এলাকাবাসী সমস্যা সমাধানে সার্বক্ষনিক তৎপর রয়েছেন। কারো কোন সমস্যার কথা শুনলেই মুহুর্তে ছুটে যাচ্ছেন। সবাই মিলে স্থানীয় কৃষকদের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন। আমাদের বিশ্বাস এমন প্রশংসনীয় জনহিতকর কাজ তিনি অব্যাহত রাখবেন। এসব কাজে এবারের ন্যায় আমরা ছাত্রলীগও সবসময় তাকে সহযোগিতা করে যাব।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: