করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য কুমিল্লার তিনিটি প্রাইভেট মেডিকেল কলেজকে কাজে লাগানো হচ্ছে। এ তিনটি মেডিকেল কলেজে ৪০ টি বেড করা হচ্ছে। যেখানে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হবে।

তিনটি মেডিক্যাল কলেজ হচ্ছে ইস্টার্ন মেডিক্যাল কলেজ, ময়নামতি মেডিক্যাল কলেজ ও সেন্ট্রাল মেডিক্যাল কলেজ। শনিবার (১৭ এপ্রিল) সাড়ে ১২ টায় কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে কুমিল্লা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় কোরাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লা -৬ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার।

কুমিল্লায় দ্রুত বাড়তে থাকা করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় তিনটি মেডিক্যাল কলেজের পরিচালক ও অধ্যক্ষ বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় সিদ্ধান্ত হয় এ তিনটি মেডিক্যাল কলেজে ৪০ টি হাই ফ্লো নজেল ক্যানুয়াল বেড থাকবে। এর মধ্যে ইস্টার্ন মেডিক্যাল কলেজে ২০ টি, ময়নামতি মেডিক্যাল কলেজ ও সেন্ট্রাল মেডিক্যাল কলেজে ১০ টি করে বেড করা হচ্ছে। আগামি বুধবারের মধ্যে (২১ এপ্রিল) দ্রুত তিনটি মেডিক্যাল কলেজে করোনা চিকিৎসা চালু করা হচ্ছে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন, কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মোস্তফা কামাল আজাদ, পরিচালক ডা. মোঃ মহিউদ্দিন, ইস্টার্ন মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. কলিম উল্লাহ, চেয়ারম্যান শাহ মোঃ সেলিম, ময়নামতি মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ কে এম মান্নান ও সেন্ট্রাল মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. সফিকুর রহমান পাটোয়ারি, কুমিল্লা ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. শাহদৎ হোসেন, বিএমএর সাধারন সম্পাদক ডা. আতাউর রহমান জসিম, স্বাচিবের সাধারন সম্পাদক ডা. মোর্শেদুল আলম।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: