৬ জানুয়ারি বুধবার, দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর বাজারের স্বর্ণ ব্যবসায়ী বিষ্ণু দেবনাথ পাওনা টাকা চাইতে গেলে প্রতারণার শিকার হন।

স্বর্ণ ব্যবসায়ী বিষ্ণু দেবনাথ এ বিষয়ে দাউদকান্দি মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের পর এসআই রাজীব কুমার সাহা আসামিদের থেকে আপন ভাই বোন কে গ্রেফতার করে। মামলার এজাহার বিবরণীতে জানা যায়, এজাহার নামীয় আসামি নাজমুল সরকার ও নাসরিন বেগম আপন ভাই-বোন।

স্বর্ণ ব্যবসায়ী বিষ্ণু দেবনাথের দোকান থেকে গত বছরের ২৭ ই জানুয়ারি ১০ হাজার টাকা বকেয়া রেখে ২০ হাজার টাকা প্রদান করে ৩২ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার কিনে নেন নাসরিন বেগম।

নাসরিন বেগম এর কাছে স্বর্ণ ব্যবসায়ী পাওনা টাকা চাইলে বিভিন্ন তালবাহানা করে কালক্ষেপণ করেন। ২০২০ সালের ১২ ডিসেম্বর মামলার বিবাদী নাসরিন বেগম বিষ্ণু দেবনাথ এর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে কল করে পাওনা টাকা নেওয়ার জন্য বিবাদীর বাসায় যাওয়ার অনুরোধ জানান।

মামলার বাদী সরল বিশ্বাসে বিবাদীর বাসায় গেলে সেখানে ঘটে এক অভিনব প্রতারণা। এজহার নামীয় অন্যান্য আসামিদের যোগসাজশে ভয়-ভীতি ও মারধর করে ছিনিয়ে নেওয়া হয় তার(বাদী) সাথে থাকা নগদ ৯০ হাজার টাকা, দুটি স্বর্ণের আংটি এবং একটি স্বর্ণের চেইন যার বাজার মূল্য আনুমানিক এক লাখ টাকা। এ ব্যাপারে দাউদকান্দি মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রাজিব কুমার সাহা জানান, ” সঠিক তদন্তের মাধ্যমে আসামীদ্বয় ঘটনায় সম্পৃক্ত থাকায় থানায় মামলা দায়ের পর আসামি নাসরিন বেগম ও তার আপন বড় ভাই নাজমুল সরকার কে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: