কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার সিদলাই গ্রামের সেই শান্তি চুক্তিনামা বাস্তবায়ন করতে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শুক্রবার থেকে দুই দিন ব্যাপী কথায় কথায় মারামারি বন্ধে মনোরোগ বিশেষজ্ঞ দিয়ে দুইদিন ব্যাপী কাউন্সেলিং শুরু হয়েছে। শনিবার শেষ হবে কাউন্সেলিং। এতে দুই দলের শতাধিক ব্যক্তি অংশ নিয়েছেন।

সিদলাই নাজনীন উচ্চবিদ্যালয়ে মনোরোগ বিশেষজ্ঞ দিয়ে দুইদিন ব্যাপী কাউন্সেলিং আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহেল রানা। বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুহাম্মদ আবু জাহের, ব্রা‏হ্মণপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অপ্পেলা রাজু নাহা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ফারুক আহাম্মদ, অধ্যক্ষ মোঃ নজরুল ইসলাম, সিদলাই ইউনিয়ন পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম। মনোরোগ বিশেষজ্ঞ হিসাবে কাউন্সেলিং করেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আয়েশা সিদ্দিকা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সিদলাই নাজনীন উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মফিজুল ইসলাম, দৈনিক ব্রা‏হ্মণপাড়া-বুড়িচং সংবাদের সম্পাদক ও প্রকাশক সৈয়দ আহাম্মদ লাভলু প্রমুখ।

ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহেল রানা বলেন, দীর্ঘমেয়াদে দলপ্রথার মুল সমাধান হলো দেশের প্রান্তিক অঞ্চলের এসকল মানুষের মনন্তত্তের পরিবর্তন। সেই মনন্তত্ব পরিবর্তনের উদ্দেশ্যে একটি ছোট্ট পদক্ষেপ এই মনোরোগ বিশেষজ্ঞ কাউন্সেলিং। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ শিক্ষক দিয়ে দুইদিন ব্যাপী কাউন্সেলিং শুরু হয়েছে। এতে সিদলাই গ্রামের বড় দল ও ছোট দলের দলভুক্ত একশ জনকে নিয়ে চারটি সেশন পরিচালনা করা হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: