চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিতব্য কুমিল্লার ৩ উপজেলার ২৬ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) প্রতীক বরাদ্দ দেয়ার পরপরই আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণায় নামেন প্রার্থীরা। প্রতীক পেয়ে প্রার্থী-সমর্থকদের মাঝে বাড়তি উৎসাহ দেখা দিয়েছে। অনেকে প্রতীক নিতে মটর সাইকেল, পিকআপ, মাইক্রো, ইজিবাইক করে কর্মী সমর্থকদের নিয়ে মিছিল শো-ডাউন করেছেন। বিশেষ করে মেম্বার প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণায় এখন সগরম কুমিল্লা সদর চৌদ্দগ্রাম ও ব্রাক্ষনপাড়া উপজেলার পাড়া মহল্লা।

এদিকে চতুর্থ ধাপে কুমিল্লার ৩ উপজেলার ৬ চেয়ারম্যান প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এদের মধ্যে সদর উপজেলায় নৌকা প্রতীকের ৩ প্রার্থী ও একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন। অপরদিকে চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় বিনাভোটে নির্বাচিত হয়েছেন দুই নৌকার প্রার্থী।

ব্রাক্ষনপাড়া উপজেলার ৮ ইউনিয়নে কেউই বিনাভোটে নির্বাচিত হননি। এ তিন উপজেলার বাকি ২০ ইউপিতে মোট ১২৮ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন।

এছাড়া কুমিল্লা সদর উপজেলায় ৪ জন ইউপি মেম্বার ও ১ জন সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার এবং চৌদ্দগ্রামে ৪ জন ইউপি মেম্বার ও ৪ সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, চতুর্থ ধাপে জেলার ৩ উপজেলার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ২৬ ডিসেম্বর। সদর উপজেলা ৬ ইউনিয়নের মধ্যে ৪ টিতেই চেয়ারম্যান পদে বিনাভোটে বিজয়ী হয়েছেন তিন নৌকার প্রার্থী ও একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ‘নৌকা’ প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হচ্ছেন ২নং দূর্গাপুর (উত্তর) ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, ৩নং দূর্গাপুর (দক্ষিন) ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ মো.আমিনুল হক এবং ৬ নং জগন্নাথপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ মামুনুর রশিদ মামুন। ৫ নং পাঁচথুবী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন বাহালুল নৌকা প্রতীক পেলেও মনোনয়ন পত্র দাখিল করেননি। এ ইউনিয়নে কোন প্রতিদ্বন্দ্বি না থাকাতে একমাত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হাসান রাফি রাজু স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জয়ী হয়েছেন।

এ উপজেলার ১নং কালিরবাজার ইউনিয়রন ও ৩ নং আমড়াতলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে ৭ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। কালিরবাজার ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪ প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ¦ মো. সেকান্দর আলী (আনারস), নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এলাকায় নতুন মুখ নূরুল ইসলাম নূর, স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সেক্রেটারী আবদুল হক (ঘোড়া) ও সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম আলী আহাম্মদ পুত্র কামাল হোসেন (মটর সাইকেল)। আমড়াতলী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৩ প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান নৌকার প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কাজী মোজাম্মেল হক, স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম ও রুবেল আহম্মেদ।

চৌদ্দগ্রাম :
চৌদ্দগ্রাম উপজেলা ১২ ইউনিয়নের মধ্যে দুইটিতে নৌকার প্রার্থীরা বিনাভোটে নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন-শ্রীপুর ইউনিয়নে শাহ জালাল মজুমদার ও ঘোলপাশা ইউনিয়নে এ কে খোকন। এ উপজেলার অপর ১০ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থীসহ মোট ৫৫জন প্রার্থী প্রতিদ্বদ্বিতা করছেন। কয়েকটি ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন বেশ কয়েকজন।

ব্রাক্ষনপাড়া :
অপর দিকে ব্রাক্ষনপাড়া উপজেলার ৮ ইউনিয়নের কোন ইউনিয়নেই চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদে কোন প্রার্থী বিনা ভোটে নির্বাচিত হননি। ৮ ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সহ মোট ৬৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। প্রায় সবকটিতে রয়েছে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী।

এদিকে, গতকাল প্রতীক বরাদ্দের পরই ব্যস্ততা বেড়েছে ছাপাখানা ও কম্পিউটারের দোকানে। চেয়ারম্যান প্রার্থীরা দুপুর ২টা থেকে শুরু করেছে মাইকিং। প্রতিদিন মাইকিং চলবে দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। তবে এর আগে থেকেই আচরণবিধির তোয়াক্কা না করে প্রচারণা চালিয়েছেন অনেক প্রার্থী। এসব ইউপিতে ভোট গ্রহণের দিন আগামী ২৬ ডিসেম্বর।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: