কুমিল্লায় টিকা নিতে এসে ৫০ শিক্ষার্থী অসুস্থ, অভিভাবকদের ক্ষোভ

কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলায় (কোভিড-১৯) টিকাদানে অব্যবস্থাপনার ফলে টিকা নিতে আসা শিক্ষার্থীদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। প্রচণ্ড ভিড়ে অন্তত ৫০ জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়ে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শিক্ষক ও অভিভাবকরা।

সরকারের ঘোষণা অনুসারে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সোমবার (১০ জানুয়ারি) জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার বিভিন্ন স্কুল-কলেজের সাড়ে তিন হাজার ছাত্রছাত্রীকে টিকাদানের ব্যবস্থা করা হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় কর্তৃপক্ষ এ উদ্যোগ নেয়। কিন্তু নির্ধারিত সংখ্যা থেকে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি বেশি হওয়ায় আয়োজকদের হিমশিম খেতে হয়। এতে করে শিক্ষার্থীদেরও বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। সকাল ৮টা থেকে দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে অনেক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ে চিকিৎসা দিতে দেখা গেছে। অনেক অভিভাবক আবার টিকা না দিয়েও কেন্দ্র থেকে তাদের সন্তানদের ফিরিয়ে নিয়ে যান।

আবুল হাশেম নামে এক অভিভাবক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, একদিনে এভাবে হাজার হাজার শিক্ষার্থীকে একসঙ্গে টিকা দেওয়া কোনোভাবেই ঠিক না। কারণ টিকাকেন্দ্রে কোনো শৃঙ্খলাই ছিল না। সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত আমাদের ছেলে-মেয়েরা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে সদর দক্ষিণ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শাহজালাল জানান, ব্যবস্থাপনার তুলনায় শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কিছুটা বেশি হওয়ায় বিলম্ব হয়েছে। সাড়ে তিন হাজার শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও উপস্থিত হয়েছে পাঁচ হাজার ৫৩৮ জন। এদের সবাইকে টিকা দিতে হয়েছে। যার ফলে একটু সমস্যা হয়েছে। ভবিষ্যতে যথাযথ ব্যবস্থা নিয়ে শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদান করা হবে।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আশরাফুর রহমান জানান, শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদানে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছে। আমরা সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত পাঁচ হাজার ৫৩৮ জন শিক্ষার্থীকে টিকা প্রদান করেছি। পাশাপাশি টিকা নেওয়ার পূর্বে অসুস্থ হয়ে পড়া শিক্ষার্থীদেরও চিকিৎসা দিয়েছি।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ