নতুন প্রজন্মের জন্য তিনি তালের নৌকা, ঢেঁকি, খড়ম, গরুর কাইর (মুখবন্ধনী), বেয়ারিংয়ের গাড়ি প্রভৃতি সংগ্রহ করেছেন। তাদের পরিচিত করাতে চান বাংলার হারানো ঐতিহ্যের সঙ্গে। কুমিল্লার শিক্ষক নাজমুল আবেদীনের এই নেশা ৩৩ বছরের। তার বাবা প্রয়াত ড. জয়নাল আবেদীন। লাকসাম নওয়াব ফয়জুন্নেছা কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন। তাদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা সদর উপজেলার বারাইপুরে।

নাজমুল আবেদীন কুমিল্লা নগরীর মগবাড়ী চৌমুহনীর বাসায় ঐতিহ্য সামগ্রী নিয়ে একটি জাদুঘর চালু করেছেন। জাদুঘরটি প্রতিদিন সকাল ১০টা-বিকাল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকে। দর্শনার্থীরা এটি দেখতে পারেন বিনামূল্যে।

জাদুঘরে গিয়ে দেখা যায়, কলের গান। অনেক আগে তা বিলুপ্ত হয়েছে। পুরনো রেডিও সেট, টেলিফোন সেট, বিভিন্ন ধরনের তালা, হরিণের মাথা, পুরনো দিনের ক্যামেরা, শ্রমিকদের কাজের লোহার সরঞ্জাম, লোহার পাল্লা, পিতলের ডেগসহ চার শতাধিক ঐতিহ্যবাহী সরঞ্জাম। শিশুদের আনন্দ দিতে নাজমুল আবেদীন সাপের ভিন বাঁশি বাজানো শিখেছেন। শিখেছেন শঙ্খ বাজানো। নাজমুল আবেদীন জানান, ‘ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ার সময় থেকে তিনি প্রাচীন জিনিসপত্র জমাতে থাকেন। প্রথম দাদার স্মৃতি কাঁসার পাত্র জমা করেন। পরে এটা ওটা জমাতে তার নেশা পেয়ে বসে। এগুলো সংগ্রহ করতে বিভিন্ন জেলায় ঘুরেছেন।

৩৩ বছরের পরিশ্রমে তিনি এগুলো সংগ্রহ করেছেন। তার পারিবারিক বাসা আদালতের পাশে। সেখানে ঢেঁকি, পালকি, মুটকি ও গরুর গাড়ি রাখা হয়েছে। তিনি কুমিল্লা নগর উদ্যানের কাছে একটি বড় জায়গা পেলে আরও বেশি সামগ্রী প্রদর্শন করতে পারবেন বলে জানান। কৈশোরে থেকেছেন গ্রামে। তাই গ্রামীণ ঐতিহ্য তাকে খুব টানে।’ তিনি আরও বলেন, ‘কেউ অনুদান হিসেবে বিভিন্ন সামগ্রী দিয়ে যান। সামগ্রীর গায়ে দাতার নাম লিখে প্রদর্শন করেন। অনেকে আবার তার পুরাতন জিনিসটি দিতে চায় না। বার বার গিয়ে চাইতে হয়। কিছু জায়গা থেকে কিনে আনতে হয়েছে। নতুন প্রজন্মকে দেশের ঐতিহ্যের সঙ্গে পরিচিত করানোর জন্য এই উদ্যোগ নিয়েছেন বলে জানান তিনি। নাজমুল আবেদীন শিক্ষকতার পরে জাদুঘরে সময় দেন। এ ছাড়া তিনি ফটোগ্রাফি ও লেখালেখি করেন।

শিক্ষাবিদ এহতেশাম হায়দার চৌধুরী বলেন, ‘নতুন প্রজন্মকে ঐতিহ্যের সঙ্গে পরিচিত করানোর এই উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়।’

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বলেন, শিক্ষকের জাদুঘর করার বিষয়টি জেনেছি। সেটি পরিদর্শন করব।

সূত্রঃ বিডি প্রতিদিন

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: