কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে যুবলীগ নেতা মনিরুজ্জামান জুয়েলের হাতে রাইফেল থাকা একটি ছবি ভাইরাল হয় বৃহস্পতিবার। ৮৬টি গুলিসহ সে রাইফেল শুক্রবার রাতে পুলিশের কাছে জমা দিয়েছেন জুয়েলের স্ত্রী ফারজানা হক।

চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শুভরঞ্জন চাকমা শনিবার দুপুরে বিষয়টি জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘তার (জুয়েল) হাতে যে অস্ত্রটির ছবি ভাইরাল হয়েছে, আমরা কাগজপত্র দেখেছি। সেটার লাইসেন্স আছে।’

রাইফেলটি অনেকটা সামরিক বাহিনীর অস্ত্রের মতো জানিয়ে ওসি বলেন, ‘এটি একটি টু পয়েন্ট টু বোরের রাইফেল, যার মডেল হচ্ছে জিএসএস-৫। এটি জার্মানির তৈরি। আমরা তার লাইসেন্স চেক করে অস্ত্রটির সঙ্গে মিলিয়েছি। এটার বৈধ লাইসেন্স আছে।’

বৈধ অস্ত্র হলে কেন থানায় জমা দিতে হবে, এমন প্রশ্নের উত্তরে ওসি শুভ রঞ্জন বলেন, ‘আসলে বৈধ অস্ত্র হলেও সেটা দিয়ে ভয়ভীতি দেখানো যাবে না। আমাদের কাছে প্রাথমিকভাবে তা-ই মনে হয়েছে।

‘যেহেতু তার (জুয়েল) হাতে রাইফেল নিয়ে একাধিক ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেতিবাচকভাবে ভাইরাল হয়েছে, সেহেতু আমরা তাকে অস্ত্রটি জমা দেয়ার জন্য খবর পাঠাই। পরে তার স্ত্রী এসে অস্ত্রটি জমা দিয়ে যান। এ বিষয়ে আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেব।’

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে চৌদ্দগ্রাম উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ জালাল মজুমদারের ওপর হামলা করেন যুবলীগ নেতা জুয়েল। হামলার পর জুয়েলের অস্ত্র হাতের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: