কুমিল্লার তিতাসে লঞ্চের ছাদে ডিজে পার্টিতে নাচানাচি করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃ’ষ্টে নিখোঁজ কিশোর শামীম হোসেনের (১৪) ম’রদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) ভোরে তিতাস নদীর শিবপুর খালের মুখে ম’রদেহ ভেসে উঠলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে পুলিশকে খবর দেয়।

শামীম তিতারসর শিবপুর গ্রামের সিএনজি চালক আব্দুল মতিনের ছেলে। সে স্থানীয় একটি স্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র।

বিষয়টি নিশ্চিত করে তিতাস থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুমন মিয়া জানান, সোমবার রাত সাড়ে ৯টায় তিতাস নদীতে লঞ্চের ছাদে নাচানাচির এক পর্যায়ে বিদ্যুতের তারের সঙ্গে জড়িয়ে প্রায় ১৫ জন দ’গ্ধ হয়। এ সময় পানিতে পড়ে নিখোঁজ হয় শামীম হোসেন।

তার ম’রদেহ ভোরে ভেসে উঠেছে। তার মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, বিদ্যুৎস্পৃষ্টে আ’হত হয়ে পানিতে ডুবে মা’রা গেছে সে। বিস্তারিত পরে জানা যাবে। এ ঘটনায় গুরুতর দ’গ্ধ দুজনকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, কিছু দিন ধরে উপজেলা প্রশাসন ও তিতাস থানা পুলিশ নদীতে ডিজেপার্টির ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। পুলিশ কিছু জায়গায় অভিযানও পরিচালনা করে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: