কুমিল্লার দেবিদ্বারে ডাক বিভাগের অফিস থেকে শনিবার সকালে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি দুই বছর ধরে ঐ অফিসে নৈশপ্রহরীর কাজ করছিলেন।

নিহত মোসলেহ উদ্দিন মুসলু মোল্লা ঐ উপজেলার বড় আলমপুরের করম আলী মোল্লার ছেলে।

নিহতের স্ত্রী মমতাজ বেগম বলেন, প্রতিদিন ডিউটি শেষে ভোর ৫-৬টার দিকে আমার স্বামী বাড়ি চলে আসেন। শনিবার সকাল সাড়ে ৯টা বাজলেও বাড়ি না ফেরায় আমি নিজে ডাক অফিসে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি দরজা খোলা ভেতরে বিছানায় আমার স্বামী উপুর হয়ে পড়ে আছেন। আমি অনেক ডাকাডাকি করেও কোন সাড়া না পেয়ে লোকজন ডাকি ও পুলিশে খবর দেই। পরে পুলিশ এসে দেখে আমার স্বামী আর বেঁচে নেই।

তিনি আশঙ্কা করেন, যেহেতু দরজা খোলা ছিল- কেউ আমার স্বামীকে হত্যা করতে পারে।

দেবিদ্বার থানার পরিদর্শক মারুফ রহমান বলেন, আমরা ধারণা করছি- ঐ নৈশপ্রহরী ঘুমের মধ্যে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন। তার শরীরে কোন আঘাত বা ক্ষতচিহ্ন পাওয়া যায়নি। নিহতের পরিবার লাশ শনাক্ত করেছে। আমরা লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছি। রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত জানানো হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: