ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষার প্রথম দিনে ১ হাজার ১৯ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলো।

এ বোর্ডে বাংলা প্রথম পত্র বিষয়ে মোট ৮০ হাজার ৩শ ৩৩ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণের জন্য রেজিষ্ট্রেশন করে।

সোমবার প্রথমদিন বাংলা বিষয়ে ৭৯ হাজার ৩১৬ জন উপস্থিত ছিলো। তবে কুমিল্লা বোর্ডের অধীন ছয় জেলার কোন কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী বহিস্কার কিংবা কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

সোমবার সকাল পরীক্ষা শুরুর ৩০মিনিট আগে পরীক্ষার্থীরা যেন কেন্দ্রে প্রবেশ করে সে অনুযায়ী নির্দেশনা দেয়া ছিলো। বাংলা প্রথম পত্র বিষয়ে কুমিল্লার অজিতগুহ মহাবিদ্যালয়ে ১০জন পরীক্ষার্থী নির্ধারিত সময়ের ১০ মিনিট পরে কেন্দ্রে প্রবেশ করে। এ বিষয়ে ওই শিক্ষার্থীদের সর্তক করে দেয়া হয়।

কুমিল্লা অজিতগুহ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব হাসান ইমাম মজুমদার ফটিক জানান, ওই কেন্দ্রে মোট ১২৬৪ জন পরীক্ষার্থীর আসন বিন্যাস করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়, শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত নির্দেশনা অনুযায়ী পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়।

ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব প্রফেসর রতন কুমার সাহা জানান, নকল ও প্রশ্ন ফাঁসর মুক্ত পরিবেশে সুষ্ঠুভাবে এইচএসসি পরীক্ষা ২০১৮ সালের বাংলা প্রথম পত্র বিষয়ের পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, প্রশ্নফাঁস রোধে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের সংশ্লিষ্টরা সর্বোচ্চ সর্তকাবস্থায় রয়েছে বলে জানান।

এদিকে এইচএসসি ২০১৮ সালের প্রথম পরীক্ষায় সহস্রাধিক অনুপস্থিতির কারণ প্রসঙ্গে কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের  চেয়ারম্যান প্রফেসর রুহুল আমিন জানান, প্রতি বছরই বিদেশ গমন,বিয়েসহ নানান কারণে বেশ কিছু পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত থাকে। তবে আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জের বিষয়টা ছিলো প্রশ্নপত্র যেন ফাঁস না হয় সেদিকে সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করা। ইনশাল্লাহ বোর্ডের অধীন ছয় জেলায় নকল-প্রশ্নফাঁস ও কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই প্রথম দিনের পরীক্ষা সম্পন্ন করেছি। ইনশাল্লাহ বাকি পরীক্ষাগুলোতেও এমন সুরু-শান্তিপূর্ণ পরিবেশের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডসহ সংশ্লিষ্টরা  বদ্ধপরিকর।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: