কুমিল্লা মেঘনায় শনিবার দুপুর ১২ ঘটিকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধ মীমাংসা সালিশ বৈঠকে পরিমল চন্দ্র (৪০) নামে এক গ্রাম পুলিশের মৃত্যু হয়। পরিমল চন্দনপুর গ্রামের অনু চন্দ্র দাস এর ছেলে।

জানা যায় দীর্ঘদিন ধরে গ্রাম পুলিশ হোমাস চন্দ্র দাস এর ভাই সুভাষ চন্দ্র দাস ও গ্রাম পুলিশ পরিমল চন্দ্র দাস এর ভাই গৌরাঙ্গ চন্দ্র দাস এর মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। এর মিমাংসার জন্য চন্দন পুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ এর কাছে লিখিত অভিযোগ করে সুভাষ।

ইউপি চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ জানান, সালিশ মীমাংসার জন্য দুই পক্ষকে ইউনিয়ন অফিসে ডেকে আনি এবং মিমাংসার স্বার্থে দুই পক্ষকেই ধমক দেই, এর মধ্যে পরিমল হঠাৎ করে পড়ে যায়। সবাই তাকে ধরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা জানান সে মারা গেছে।

এদিকে পরিমলের স্ত্রী ও ভাতিজা জানায়, চেয়ারম্যানের ধমকে ও হোমাসের লাঠি নিয়ে আসা দেখে পরিমল ভয় পেয়ে মারা যায়।

এ বিষয়ে মেঘনা থানা তদন্ত অফিসার জাকির হোসেন জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠাবো এবং মৃতের পরিবার মামলা করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: