কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে তিন নারীসহ ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে তিনজন, করোনা ওয়ার্ডে একজন এবং আইসিইউতে দুইজন করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান। বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) কুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা.মজিবুর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জেলা সিভিল সার্জন অফিসের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৭৭ জন।

কুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. মজিবুর রহমান বলেন, হাসপাতালের আইসোলেশন, করোনা ওয়ার্ড এবং আইসিইউতে মারা যান কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার আলী মিয়ার ছেলে আবদুল খালেদ (৬৫), কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার নুরুজ্জামানের মেয়ে আমেনা বেগম (৭৭), চাঁদপুর শাহারাস্তি উপজেলার আবদুল হাকিমের ছেলে আবদুল লতিফ (৮০), একই উপজেলার আলী আক্কাসের মেয়ে হোসনেয়ারা বেগম (৬০), ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলের সাহিদুল হকের ছেলে মহিউদ্দিন (৫৫) এবং কুমিল্লার সন্দেশপাড়া এলাকার মৃত জাবেদ আলীর মেয়ে রাইতার নেছা (৬৫)।

কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডা. নিয়াতুজ্জামান বলেন, বৃহস্পতিবার আরও ৪৭ জনের নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে মহানগরীতে ছয়জন, আদর্শ সদরে দুইজন, নাঙ্গলকোটে সাতজন, লাকসামে সাতজন, মেঘনায় ছয়জন, চান্দিনায় চারজন, দেবিদ্বার, বরুড়া, চৌদ্দগ্রাম ও বুড়িচংয়ে তিনজন করে এবং হোমনা, লালমাই ও মনোগরগঞ্জে একজন করে আক্রান্ত হয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, এ পর্যন্ত ২৪ হাজার ১৫১ জনের নমুনা প্রেরণের পর রিপোর্ট পাওয়া গেছে ২৪ হাজার ২৮ জনের। এর মধ্যে পজিটিভ পাঁচ হাজার ৭৭ জনের। নতুন করে চান্দিনায় একজনের মৃত্যুসহ এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৩১ জনের। মোট সুস্থ হয়েছে তিন হাজার ৯৬ জন।

সূত্রঃ জাগোনিউজ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: