করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে একটা আশংকার কথা ছড়ানো হচ্ছে। এটা একটা প্রপাগান্ডা। স্বার্থান্বেষী মহল যারা দেশের অরাজকতা সৃষ্টি করতে চায় , যারা মানুষের মধ্যে দ্বিধা-বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে চায় তারাই টিকা নিয়ে বিভ্রান্তি প্রপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। এগুলো সবই অপপ্রচার। আমাদের সৈনিকরা কখনো ভয় পায় না। আমাদের সর্বদা দেশের স্বার্থ রক্ষায় প্রস্তুত থাকতে হবে।

রবিবার দুপুরে কুমিল্লা সেনানিবাসের অলিপুর সৈনিক ক্লাবে করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুমিল্লা ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মো: জাহাঙ্গীর হারুন, এসজিপি, এনডিসি, এএফডব্লিউসি, পিএসসি এসব কথা বলেন।

বক্তব্য শেষে জিওসি প্রথমে করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন। পরে কর্ণেল স্টাফ করোনা ভ্যাকসিন নেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কুমিল্লা সেনানিবাসের উর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাগণ, সিভিল সার্জন, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও জনপ্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য যে, উক্ত করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রমের জন্য গত ৪ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লা সেনানিবাসের সকল ইউনিটের প্রতিনিধিগণকে রেজিষ্ট্রেশন কার্যক্রম সম্পন্নে প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

এছাড়াও সঠিকভাবে ভ্যাকসিন প্রদানের নিমিত্তে কুমিল্লা সেনানিবাসের চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে গত ৩ ফেব্রুয়ারি প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। কুমিল্লা সেনানিবাসের সকল সেনা সদস্যকে পর্যায়ক্রমে এ রেজিষ্ট্রেশন ও করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রমের আওতায় নিয়ে আসা হবে জানানো হয়।

সবশেষে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন কার্যক্রমের উক্ত উদ্বোধন উপলক্ষে জিওসি ৩৩ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার , কুমিল্লা এরিয়া করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: