কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে পেয়ার ও ১০ টাকার লোভ দেখিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে ছয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় হারুনুর রশিদ (৩৫) নামের এক অটোরিকশা চালককে আটক করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার গভীর রাতে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা এলাকার জাহাঙ্গীর কলোনি থেকে তাকে আটক করা হয়। সে উপজেলার আদ্রা দক্ষিণ ইউপির আটিয়াবাড়ি পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত সেকান্দরের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, লম্পট হারুনুর রশিদ (গত ২৩-আগস্ট) রবিবার সন্ধ্যায় ওই শিশুটিকে পেয়ারা ও ১০ টাকার লোভ দেখিয়ে তার ঘরে ডেকে নিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে ওই শিশুকে ধর্ষণ করে। পরে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে তার মাকে ঘটনাটি জানায়। একপর্যায়ে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় শিশুটিকে প্রথমে নাথেরপেটুয়া পরে লাকসামের একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যায়। সেখান থেকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে লম্পট হারুনুর রশিদ পালিয়ে যায়। পরে শিশুটির পিতা (গত ২৪-আগস্ট) সোমবার রাতে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, ভিকটিমের পিতা বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। গত মঙ্গলবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা এলাকার জাহাঙ্গীর কলোনিতে অভিযান চালিয়ে হারুনুর রশিদকে আটক করা হয়। গতকাল বুধবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: