মো. জাকির হোসেনঃ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চলাচলরত মেসি-মারতি (মিনি মাইক্রোবাস) থেকে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার নিমসার এলাকায় চাঁদা আদায়ের প্রতিবাদে গতকাল রোববার সকাল থেকে ধর্মঘটের ডাকদেয় চালকরা। এতে করে সাধারণ যাত্রীদের ভোগান্তী চরম আকার ধারন করে। দুপুরে হাইওয়ে পুলিশের হস্তক্ষেপে ধর্মঘট তুলে নিলে মহাসড়কে চলাচল শুরু হয় মেসি-মারতির।

কুমিল্লা জেলা মেসি-মারতি পরিবহন (সবুজ কার্ড বি-৯৩৮) এর পরিচালক মোঃ আজাদ জানান, দীর্ঘদিন ধরে কুমিল্লা ক্যান্টমেন্ট থেকে চান্দিনা পর্যন্ত প্রায় শতাধিক মেসি-মারতি পরিবহন চলাচল করে আসছে। গত ৩/৪  দিন ধরে মহাসড়কের বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের নিমসার বাজার এলাকায় কুমিল্লা জেলা বাস ও মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের আওতাধীন নিমসার বাজার লিয়াজো অফিসের নামে প্রতি গাড়ী থেকে ৩০ টাকা করে চাঁদা আদায় করতে থাকে। কিছু চালক চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে নিমসার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মাসুদ রানা, নূরুল ইসলাম ও রতন এর নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা চালকদের মারধর করে। এর প্রতিবাদে গতকাল রোববার সকাল ১০ টা থেকে মেসি-মারতির প্রায় শতাধিক চালকরা মহাসড়কের কালাকচুয়া এলাকায় রাস্তার পার্শ্বে গাড়ী রেখে ধর্মঘট করতে থাকে। এতে করে ওই রুটে চলাচলরত যাত্রীরা চরম ভোগান্তীর মধ্যে পরে।

খবর পেয়ে দুপুর ১ টায় ময়নামতি হাইওয়ে ক্রসিং থানা পুলিশের এস আই আলাউদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্সসহ ধর্মঘটের স্থলে পৌছালে চালকরা তাদের অভিযোগ পুলিশকে জানান। পরে দুপুর দেড়টায় আর চাঁদা দেয়া লাগবেনা পুলিশের আস্বাসের চালকরা ধর্মঘট তুলে নিলে ওই সড়কে পুনরায় মেসি-মারতি চলাচল আরাম্ভ হয়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: