কুমিল্লার নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জীববিজ্ঞান ক্লাস নিয়েছেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান। শনিবার (২ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত তিনি তাদের ক্লাস নেন।

একাধিক শিক্ষার্থী জানায়, ঘড়ির কাটায় তখন সাড়ে ৭টা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিদ্যালয় মিলনায়তনে বসে আছে ১৫০ শিক্ষার্থী। শিক্ষক বেশে ডিসি মোহাম্মদ কামরুল হাসান এক হাতে মার্কার, অন্যহাতে মাইক্রোফোন নিয়ে পাঠদান শুরু করেন। এ সময়ে তিনি মানবদেহের বিভিন্ন অঙ্গ, রক্তকণিকা অধ্যায় পড়ান। মাঝে-মধ্যে হোয়াইট বোর্ডে চিত্র এঁকে বুঝিয়ে দেন সাবলিলভাবে। একপর্যায়ে তিনি শিক্ষার্থীদের প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেন।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগ থেকে এমএসসি ডিগ্রি অর্জন করি। এরপর বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারে মৌলভীবাজার সরকারি কলেজে জীববিজ্ঞানের শিক্ষকতা শুরু করি। সেখানে দুই বছর শিক্ষকতা করার পর ২০০৩ সালের ২১ মে আবার বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারে যোগ দিই। শিক্ষকতা আমার মগজে ঢুকে আছে। আমি ক্লাসকে বড় বেশি ভালোবাসি। তাই ক্লাস করতে চলে এলাম।

মোহাম্মদ কামরুল হাসান ক্লাসে আরও বলেন, হৃদয় দিয়ে পড়তে হবে। মন খারাপ হলে বই পড়বে। কখনো হতাশ হবে না। আত্মবিশ্বাস নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। যেটা ভালো লাগে না, সেটা করবে না। তোমরা চাইলেই দেশটা পরিবর্তন করে দিতে পারো।

এ সময় নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রোকসানা ফেরদৌস মজুমদার, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল মজিদ, ফেনী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. নুরুল ইসলামসহ বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষকা রোকসানা ফেরদৌস মজুমদার বলেন, দুইদিন আগে জেলা প্রশাসক মহোদয় ফোনে জানিয়ে ছিলেন তিনি বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের ক্লাস নিতে চান। সে হিসাবে সকাল সাড়ে ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত টানা প্রায় আড়াই ঘণ্টা ক্লাস নেন তিনি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: