দিদারুল ইসলাম(তুহিন): ২৭ অক্টোবর শুক্ররার বিকার ৫ টায় বীরচন্দ্র নগর মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধ কর্ণারে বিনয় সাহিত্য সংসদের ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবাষিকী ও এর উদ্যোগে গবেষনা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য মিনার মনসুর ও কাব্যচর্চা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য প্রফেসর ড. বায়তুল্লাহ কাদেরীকে বিনয় সম্মাননা পদক-২০১৭ প্রদান ও আপন ২২তম সংখ্যার প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান, উপাচার্য ,জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি বলেন স্বাধীনতার পর বাংলা সাহিত্য অনেক দুর এগিয়েছে। কুমিল্লা বিভিন্ন অগ্রগতি বাংলাদেশের স্বাধীনতা অন্দোলনে ততকালীন সরকারের ভুমিকা বিষয়ে স্মৃতিচাড়ন করেন। বাংলা ভাষা বাংলাদেশের ধীরেন্দ্র নাথ দত্তের।

এছাড়াও ছিলেন ড. আমিনুল রহমান সুলতান, উপ-পরিচালক,গবেষনা বিভাগ, বাংলা একাডেমি, ঢাকা। আরও উপস্থিত ছিলেন মামুন সিদ্দিকী, গবেষনা কর্মকর্তা, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, ঢাকা। মিনার মনসুর কুমিল্লা নিয়ে গবেষনার বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন। প্রফেসর ড. বায়তুল্লাহ কাদেরী বক্তব্যে বলেন সাহিত্য ও কাব্য চর্চায় কুমিল্লার মানুয়ের অবদান রয়েছে। তিনি ফজলে রাব্বীকে নিয়ে স্মৃতিচাড়ন ও কবিতা আবৃত্তি করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যের পরে বিনয় সম্মাননা পদক-২০১৭ প্রদান ও ২২ তম সংখ্যার মোড়ক উম্মোচন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাপ্তাহিক অভিবাদনের সম্পাদক আবুল হাসানাত বাবুল। ও সাপ্তাহিক আমোদের সম্পাদক বাকিন রাব্বী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সদস্য অধ্যাপক লোকমান হাকিম ও সচেতন নাগরিক কমিটির সভাপতি বদরুল হুদা জেনু। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক ডা. মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ, সভাপতি ,বিনয় সাহিত্য সংসদ, কুমিল্লা।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: