কুমিল্লায় মাদরাসা ছাত্রকে বলাৎকার, শিক্ষক গ্রেফতার

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে দারুন নাঈম দাখিল মাদরাসার এক আবাসিক ছাত্রকে বলাৎকার করার অভিযোগে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার উপজেলার গৌরীপুর দক্ষিণ বাজারে মাদরাসার আবাসিক হলে এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেফতারকৃত শিক্ষক মো. সোহরাব হোসেন (২২) কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার হিলালনগর গ্রামের মাস্টার বাড়ির জাকির হোসেন ছেলে ও দারুন নাঈম দাখিল মাদরাসার আবাসিক শিক্ষক। ওই ছাত্রের অভিভাবকের অভিযোগের ভিত্তিতে দাউদকান্দি মডেল থানায় মামলা নেয়ার পর বুধবার ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে কুমিল্লা জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, গৌরীপুর দক্ষিণ দারুন নাঈম দাখিল মাদরাসার নাজেরা বিভাগের আবাসিক শিক্ষক মো. সোহরাব হোসেনের হলে থাকতেন তিতাসের ১০ বছর বয়সী ওই শিক্ষার্থী। রাতে পড়া শেষ হলে ওই শিক্ষার্থীকে প্রায়ই ওই শিক্ষক তার নিজ কক্ষে নিয়ে শরীর ম্যাসেজ করাতেন ও বলাৎকার করতেন।

বুধবার বিকেলে ভুক্তভোগী ছাত্রের অভিভাবক দেখতে আসলে এ মাদরাসায় আর পড়বে না বলে কান্নাকাটি শুরু করে সে। কেন থাকবে না জানতে চাইলে বিষয়টি খুলে বলেন। মাদরাসা কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানালে তারা কোনো গুরুত্ব না দেওয়ায় পরে থানায় অভিযোগ করা হয়। অভিভাবকের অভিযোগের ভিত্তিতে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ভুক্তভোগী অভিভাবক বলেন, আমার শিশু ছেলে এ ধরনের নির্যাতনের শিকার হয়েছে, এ মাদরাসায় কোনো শিক্ষার্থীই নিরাপদ নয়। আমি এর এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করায় তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ আইনে মামলা করা হয়েছে।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

ফেসবুকে আমরাঃ