দাউদকান্দি প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার দাউদকান্দিতে মেঘনা-গোমতী সেতুতে কাভার্ড ভ্যান ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষের ঘটনায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে; যদিও দুর্ঘটনার এক ঘণ্টার মধ্যেই যানবাহন দুটিকে সরিয়ে নেওয়া হয়। এই যানজট সেতু এলাকা থেকে হরিপুর পর্যন্ত দাউদকান্দি অংশে ১০ কিলোমিটার ছাড়িয়ে গেছে। এ কারণে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

গতকাল শনিবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটার দিকে সেতুর ওপর ঢাকাগামী একটি কাভার্ড ভ্যান ও চট্টগ্রামগামী একটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।

কক্সবাজার থেকে রাত নয়টায় ছেড়ে আসা ঢাকাগামী গ্রীন লাইন পরিবহনের বাসের চালক রহিম বাদশা বলেন, ভোর ছয়টায় হরিপুরে এসে যানজটে আটকা পড়ে এক কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে তিন ঘণ্টা সময় লেগেছে। দীর্ঘ সময় বাসে বসে থেকে শরীর ব্যথা হয়ে যায়। নিয়মিত এ ভোগান্তি সহ্য হচ্ছে না।

বাসের যাত্রী কক্সবাজারের চকরিয়ার রিভিং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবদুল আজিজ বলেন, দীর্ঘ সময় মাঝপথে আটকা থাকলে যাত্রীদের সবচেয়ে বড় যে সমস্যায় পড়তে হয় তা হলো শৌচাগারের সংকট। এ চাড়া যথাসময়ে ঢাকায় পৌঁছাতে না পারলে অফিশিয়াল কাজও করা যায় না।

গ্রীন লাইন বাসের অন্য চালক নূর হোসেন বলেন, দাউদকান্দি টোলপ্লাজায় শৃঙ্খলার অভাবে যানজট নিয়মিত সৃষ্টি হচ্ছে। যানজটে ভুগছেন যাত্রী ও চালকেরা । এগুলো দেখার যেন কেউ নেই।

দাউদকান্দির জামালকান্দি উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফরিদা ইয়াছমিন থাকেন গৌরীপুরে। তিনি বলেন, স্কুল ১০টায় হলেও তীব্র যানজট দেখে সকাল সাড়ে সাতটায় বের হন। এরপর নয় কিলোমিটার পথ হেঁটে স্কুলে আসেন।

দাউদকান্দির ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ব্যবসায় শিক্ষা শাখার শিক্ষার্থী সুস্মিতা সাহা, অনামিকা সাহা ও সাথী আক্তার এবং একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থী মিমি, তাবাসসুম, ইমন, ইতি ও তাসমিয়ার ভাষ্য, আজকে তাদের মাসিক পরীক্ষা। তাই নয় কিলোমিটার পথ হেঁটে কলেজে যেতে হয়েছে।

গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য সহকারী মনির হোসেন বলেন, যানজটের কারণে অফিসের কাজে দাউদকান্দি যেতে মাইক্রোবাসে ১০ টাকার ভাড়া ৬০ টাকা লেগেছে। এ সড়কে চলাচলকারী মাইক্রোবাসের চালকের সহকারী সুমন মিয়া বলেন, যানজটের কারণে ১০ মিনিটের পথ যেতে কয়েক ঘণ্টা লাগে, গ্যাস পোড়ে বেশি। এ জন্য ভাড়া বেশি নিতে হচ্ছে।

ঢাকা থেকে ফেনীগামী স্টার লাইন বাসের চালক আবদুর রহমান বলেন, মহাসড়কের দুপাশেই যানজট লেগে আছে। উল্টো পথে যানবাহন চলাচলের কারণে যানজট বৃদ্ধি পাচ্ছে।

দাউদকান্দি হাইওয়ে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, সেতুর ওপর দুর্ঘটনার কারণে এক ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। এতে এই তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। তবে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করতে এবং যাত্রীদের ভোগান্তি দূর করতে হাইওয়ে পুলিশের চেষ্টা চলছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: