কুবি প্রতিনিধিঃ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে দুই ছাত্রলীগ নেতা কর্তৃক সাংবাদিকদের গুলি করে হত্যার হুমকি ও লাঞ্ছনার বিচারের দাবিতে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (কুবিসাস)। রবিবার সকাল ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরীর বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে সাংবাদিকেরা। এদিকে ভোক্তভোগী দুই সাংবাদিক প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন।

গত শুক্রবার (১৯ জুলাই) রাত দশটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ার সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম হল এবং শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের ছাত্রলীগের জুনিয়র কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় ক্যাম্পাসে কর্মরত সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মার্কেটিং বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী শোয়েব হাসান হিমেল সাংবাদিকদের উদ্যেশ্য করে অশ্রাব্য ভাষায় গালমন্দ শুরু করেন এবং সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে কেন এসেছেন বলে চিৎকার করতে থাকেন এবং সেখান থেকে সরে যেতে বলেন।

এসময় উপস্থিত সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও যুগান্তর প্রতিনিধি তানভীর সাবিক প্রতিবাদ করলে হিমেল পুনরায় সাংবাদিকদের উদ্যেশ্য করে বলেন, ‘গুলি করবো। বুলেট সাংবাদিক চিনে না, সাংবাদিক পাইলেই গুলি করে মারবো।’ এসময় তার সঙ্গে থাকা শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ রাইহান ওরফে জিসান বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সমকাল প্রতিনিধি আবু বকর রায়হানকে মারার জন্য দলবলে তেড়ে আসেন।

এ ঘটনায় সাংবাদিক নেতারা বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (কুবিসাস) এর সদস্যরা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়কে দেশ তথা বিশ্বের দরবারে যথাযথ উপস্থাপনে সদা জাগ্রত থাকে। তবে দুঃখের বিষয় যে, বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদকর্মীরা বিভিন্ন সময় হুমকি, ধামকি ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছনার শিকার হয়ে আসছে। এবং গতকালের ঘটনার দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে।
এদিকে সাংবাদিকদের হত্যার হুমকির প্রতিবাদে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সংগঠনগুলো নিন্দা জানিয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: