সাক্কু ১৬ বছর কুমিল্লাকে পানির নিচে রেখেছেন: রিফাত

সাক্কু ১০ বছর সিটি মেয়র ও ৬ বছর পৌর চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ১৬ বছর কুমিল্লা শহরকে পানির নিচে রেখেছেন। সোমবার (৩০ মে) সন্ধ্যায় কুমিল্লা হাইস্কুলে উঠান বৈঠকে আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত এসব কথা বলেন।

রিফাত বলেন, আমার বিরুদ্ধে অনেক ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। শুধু আমার বিরুদ্ধে না বাহার ভাই ও কুমিল্লা আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অনেক ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। কিন্তু সকল ষড়যন্ত্র ছিন্ন করে বাহার ভাই আমার জন্য নৌকা নিয়ে এসেছেন। কয়েকদিন পর সংসদ অধিবেশন শুরু হবে। কুমিল্লায় যদি নৌকা বিজয়ী না হয় বাহার ভাইয়ের বুক ভেঙে যাবে। তাই ১৫ তারিখ আপনারা নৌকাকে বিজয়ী করে বাহার ভাইয়ের মুখ উজ্জ্বল করবেন।

তিনি বলেন, আমি অঙ্গীকার করছি, সিটি করপোরেশন থেকে দুর্নীতি দূর করবো। আমার নেত্রী শেখ হাসিনা কুমিল্লায় কোটি কোটি টাকা দিয়েছেন। আমি কুমিল্লা টাউন হলে শ্বেতপত্র প্রকাশ করে জনগণের সামনে সাক্কুর দুর্নীতির বিষয় উন্মুক্ত করবো। আমি কোনো অবস্থাতেই দুর্নীতি করবো না। আমি দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করলাম। আমি সিটি করপোরেশনকে রাজনৈতিক কার্যালয় বানাবো না। আমি মেয়র, নগর পিতা হতে চাই না। আমি আপনাদের রিফাত থাকতে চাই। আমি সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে সিটি করপোরেশন পরিচালনা করবো। সিটি করপোরেশন আপনাদের জন্য নিরাপদ জায়গা। আপনাদের জন্য সিটি করপোরেশনের দরজা সবসময় খোলা। আমি এই শহরকে যানজট ও জলজট মুক্ত করবো। শিশু অপরাধ দূর করতে কাজ করবো। আপনারা নৌকাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করুন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন ভূঁইয়া, প্রফেসর আবদুর রশীদ, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান তারিকুর রহমান জুয়েল, মহানগর যুব লীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ শহীদ ও জাগ্রত মানবিকতার সাধারণ সম্পাদক তাহসিন বাহার সূচনা।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কুর মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  

ফেসবুকে আমরাঃ