কুমিল্লার প্রবীন রাজনীতিবিদ, কুমিল্লা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ১৪ দলের সমন্বয়ক এডভোকেট আফজল খাঁন অসুস্থ হয়ে কুমিল্লা সিডি প্যাথ হসপিটালের আই.সি.ইউ তে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

অধ্যক্ষ আফজল খান ষাটের দশক থেকে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ছাত্রজীবনের শুরুতেই তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন। এক সময় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি ছিলেন। ছাত্র রাজনীতিতে আসার সুবাধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানেরর সান্নিধ্যে আসার সুযোগ হয় আফজল খানের।

সেইসময় থেকে তাকে ব্যক্তিগতভাবে চিনতেন বঙ্গবন্ধু। কুমিল্লায় আওয়ামীলীগ প্রতিষ্ঠার গোড়ার দিকে আফজল খানের অবদান উল্লেখযোগ্য। আফজল খান জীবনের পুরো সময় আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত থেকে কাটিয়েছেন। ৭১’এর মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি অংশগ্রহণ করে বীরত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক, সাধারণ সম্পাদকসহ বিভিন্ন সময়ে দলের বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। দীর্ঘদিন রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকায় তার গুণগ্রাহীর সংখ্যাও অনেক।

একবার কুমিল্লা পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান এবং একবার সদর উপজেলার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বিভিন্ন সময়ে নানা কারণেই তিনি আলোচিত হয়েছেন। কুমিল্লার রাজনৈতিক ব্যক্তিদের মাঝে তিনি সবচেয়ে বেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে কুমিল্লা মডার্ন হাইস্কুল, বঙ্গবন্ধু ল কলেজ, ফজিলাতুন্নেছা কারিগরি কলেজসহ তার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ১৯টি। তিনি একজন সমবায়ী, সমবায় আন্দোলনের অবদানের জন্য এবং বৃক্ষরোপণের জন্য জাতীয় পর্যায়ে পুরষ্কার লাভ করেছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: