মো.জাকির হোসেনঃ কুমিল্লার বুড়িচংয়ে এক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। রোববার রাতে জেলার বুড়িচং উপজেলার দেবপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষিতা ওই নারী শ্রমিক (১৭) ওই উপজেলার দেবপুরস্থ জিহান ফুটওয়্যার কোম্পানীতে কাজ করতো। সোমবার বিকেলে স্থানীয় এক সাংবাদিকের সহায়তায় ওই ভিকটিম থানায় গিয়ে অভিযোগ করায় পুলিশ ঘটনাটির তদন্তে মাঠে নেমেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ভিকটিম ওই নারী শ্রমিক জীবিকা নির্বাহ করতে মা এবং ছোট বোনসহ জেলার বুড়িচং উপজেলার দেবপুরের জিহান ফুটওয়্যার কোম্পানীতে কাজ করতো। সেখানকার একটি ভাড়া বাসায় তারা থাকতো। কর্মস্থলে আসা যাওয়ার পথে হৃদয় নামের স্থানীয় এক যুবক তাকে প্রায়ই উত্যক্ত করতো। রোববার সন্ধ্যায় সে বড় বোনের বাসা ক্যান্টনমেন্ট থেকে দেবপুরে ফেরার পথে গাড়ীর জন্য অপেক্ষা করছিল। এ সময় হৃদয় তাকে দেখে বাসায় পৌছে দেয়ার কথা বলে মোটরসাইকেলের পেছনে উঠায়। পরে তাকে কৌশলে দেবপুর এলাকার একটি পরিত্যক্ত বাড়ীতে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পর ফোন করে হৃদয় তার আরো ৩ বন্ধুকে ডেকে নিয়ে আসে।

>>আরো পড়ুনঃ  বুড়িচংয়ে পুকুরের পানিতে ডুবে এক শিশুর করুন মৃত্যু

ভিকটিম জানান, ‘সেখানে ভয় দেখিয়ে তাকে পালাক্রমে হৃদয় ও তার বন্ধুরা ধর্ষণ করে। এ নিয়ে মুখ খুললে আমাকে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেয়া হয়।’ এদিকে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হওয়ার পর সোমবার বিকেলে স্থানীয় এক সাংবাদিকের সহযোগিতায় ভিকটিম ওই নারী শ্রমিক থানায় গিয়ে ধর্ষণের বিষয়ে অভিযোগ করে।

বিকালে বুড়িচং থানার ওসি মনোজ কুমার দে মুঠো ফোনে জানান, ‘ধর্ষিতার নিকট থেকে প্রাথমিকভাবে ঘটনা অবহিত হয়ে তাকে নিয়ে আমরা (পুলিশ) তদন্তে নেমেছি, ভিকটিম পিও (ঘটনাস্থল) সনাক্ত করতে পারলেও হৃদয় নামের এক ধর্ষকের ডাক নাম ছাড়া তার ঠিকানা, পরিচয় কিংবা অন্য ধর্ষকদের নাম ঠিকানা কিছুই বলতে পারে না। তাই ধর্ষকদের চিহিৃত ও আটক করা সম্ভব হচ্ছে না।’ ধর্ষকদের আটক করতে পুলিশের অভিযান চলছে বলেও ওসি জানিয়েছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ