ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা জেলার আদর্শ সদর উপজেলার বড়দৈল গ্রামের স্থানীয় ব্যবসায়ী মোঃ তাজুল ইসলামের ছেলে মোঃ আব্দুল লতিফ (৩৭) স্থানীয় সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজের হামলায় আহত হয়।

গতকাল বুধবার রাত ৯ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায় মোঃ আব্দুল লতিফের ব্যবসার সাফল্য দেখে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা তার কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। এতে মোঃ আব্দুল লতিফ অস্বীকার করায় তাকে হামলা করে। এতে মোঃ আব্দুল লতিফ মারাত্মক ভাবে আহত হয়। তখন ঘটনা স্থলের লোকেরা তাৎক্ষণিক ভাবে তাকে কুমিল্লা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। কিন্তু তার চোখের অবস্থা বিপদজনক হওয়ায় কুমিল্লা সদর হাসপাতালের ডাক্তাররা তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। এ হামলায় মোঃ আব্দুল লতিফের মাথায় জখম সহ চোখে মারাত্মকভাবে আঘাত পান তিনি। চিকিৎসক জানান চোখের রেটিনার অবস্থা ভালো নয়, তাই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া লাগতে পারে।

এলাকার লোকদের সাথে কথা বলে জানা যায় এই শীর্ষ সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজরা হল একই গ্রামের (বড়দৈল) মৃত ফুল মিয়ার ছেলে আনোয়ার হোসেন (আনাল) ও আফজাল হোসেন। তারা প্রায় এলাকার মানুষকে চাঁদার জন্য হেনস্তা করে। একটি গ্রামের জন্য চাঁদাবাজি এবং সন্ত্রাসী কর্মকান্ড খুবই ঘৃণিত একটি বিষয়। তাই এলাকার মানুষের দাবী, ভবিষ্যতে কোন সন্ত্রাসী যেন কাউকে এভাবে আঘাত করতে না পারে।

মোঃ আব্দুল লতিফের অবস্থা খারাপ বিধায় তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। তাই তার ভাই মোঃ শরিফুল ইসলামের সাথে কথা বলে জানা গেছে তার পরিবার এ বিষয়ে স্থানীয় থানায় মামলা করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছেন।