কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন স্থানে পৃথক তিনটি অভিযান চালিয়ে ৫০ বোতল ফেন্সিডিল, ২৮ কেজি গাঁজাসহ ৭ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ কুমিল্লা, উপ-পরিচালক, কোম্পানী অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানান, মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) সকালে জেলার দাউদকান্দি থানাধীন টোলপ্লাজা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে গাঁজা ক্রয়-বিক্রয়ের সময় তিনজন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ সময়ে তাদের নিকট থেকে ২০ কেজি ৫০০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা হলো বাগেরহাট জেলার মংলা থানার মাছমারা গ্রামের মৃত রুমি সরদারের স্ত্রী মোছাঃ বিউটি বেগম প্রকাশ্যে তারা বেগম (৫০), মংলা থানার সিগনাল টাওয়ার গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমানের স্ত্রী বিউটি বেগম (৬৫) এবং মংলা থানার মাছমারা গ্রামের মৃত রুমি সরদারের ছেলে মোঃ মেহেদী হাসান মুন্না (২০)।

এছাড়া টোলপ্লাজা এলাকায় ফেন্সিডিল ক্রয়-বিক্রয়ের সময় দুইজন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে অন্য একটি দল। এ সময়ে তাদের নিকট থেকে মোট ৫০ বোতল ফেন্সিডিলউদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ীদ্বয় হলো কুমিল্লা জেলার কোতয়ালি থানার রাজমঙ্গলপুর গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে মোঃ রবিউল ইসলাম (১৯) ও একই মৃত আবুল কাশেম এর ছেলে মোঃ ইয়াছিন (১৯)।

এদিকে পৃথক অপর একটি অভিযানে টোলপ্লাজা থেকে ৮ কেজি গাঁজাসহ আরো দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে ব্যাব। গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ীদ্বয় হলো কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া থানার শশীদল (দক্ষিণ পাড়া) গ্রামের রমিজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ বিল্লাল হোসেন (১৯) ও একই এলাকায় ফুল মিয়ার ছেলে মোঃ মনির হোসেন শুভ (১৯)।

প্রাথমিক অনুসন্ধান ও গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল।

আসামীদের বিরুদ্ধে জেলার দাউদকান্দি থানায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন বলে জানান র‌্যাব।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: