ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লার হোমনায় সিএনজি অটোরিকশা চালকের দেওয়া ‘বকুল’ নামে বুনো ফল খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে উপজেলার তেভাগিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির পাঁচ শিক্ষার্থী। শনিবার এ ঘটনা ঘটে। শিক্ষার্থীরা হলো- সুমাইয়া, জান্নাতুন নাহার, তাহমিনা আক্তার, শরীফা ও ফারজানা।

অসুস্থ ছাত্রীরা জানায়, তারা ক্লাসের বিরতিতে বিদ্যালয়ের পাশের একটি বাড়িতে দোয়ার অনুষ্ঠান দেখতে গিয়েছিল। সেখান থেকে স্কুলে যাওয়ার পথে রাস্তায় তেভাগিয়া গ্রামের সিএনজি অটোরিকশার চালক মুছা মিয়া তাদের হাতে বুনো ফল দিয়ে খেতে বলে। শিক্ষার্থীরা ভালো ফল মনে করে খেয়ে স্কুলে যায়। স্কুলে যাওয়ার পর পরই তাদের পেটে যন্ত্রণা শুরু হয়। পরে শিক্ষকরা তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. জাকির হোসেন জানান, ‘শিক্ষার্থীরা পথে সিএনজি অটোরিকশা চালকের দেওয়া একটি ফল খেয়ে স্কুলে গিয়েই পেটের ব্যথায় অসুস্থ হয়ে পড়ে। তা দেখে দ্রুত হাসপাতালে এনে চিকিৎসার ব্যবস্থা করি।’

কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আক্তার আলম জানান, শিক্ষার্থীরা একটি ফল খেয়ে ফুড পয়জনিংয়ে আক্রান্ত হয়। পেটের ব্যথায় কাতরাতে কাতরাতে অচেতন হয়ে হাসপাতালে আসে। তাদের চিকিৎসা চলছে।