কুমিল্লার হোমনায় গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে চার যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার হোমনায় তাদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

হোমনা-মেঘনা সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. ফজলুল করিম জানান, ঘটনার দশ দিন পর শনিবার বিশ্বস্ত সূত্রে জানতে পেরে অভিযান চালিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার এবং চার যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়।

জানা যায়, ধর্ষণের অভিযোগ ধাপাচাপা দিতে ডাকা হয়েছিল সালিশি বৈঠক কিন্তু বিপত্তি বাধে পুলিশ জেনে যাওয়ায়। উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে থানায় মামলার পর একই দিনে গ্রেপ্তার হন চার জন।

তারা হলেন- হাসান (২৭), মো. রাসেল (২০), ইউসুফ প্রকাশ বাদশা (২৫) ও সোহাগ মিয়া।

পুলিশ সূত্র জনা যায়, ধর্ষণের শিকার নারী ও তার স্বামী দুজনই প্রতিবন্ধী। গত ২৯ ডিসেম্বর রাতে আসামিরা ঘরে ঢুকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে।

পরে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে সালিশে টাকার বিনিময়ে মীমাংসার চেষ্টাও হয়েছিল বলে জানান হোমনা-মেঘনা সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. ফজলুল করিম।

হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কায়স আকদ বলন, সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত চার জনকে রবিবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: