বাবা মাসুম মিয়া ও মা শাহনাজ বেগমের সঙ্গে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে ১৫ দিন কাটানোর পর মুক্তি পেল সাত মাসের শিশু মাহাদী হাসান। বৃহস্পতিবার সকালে সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে আদালতের আদেশে মাহাদী মুক্তি পায়। কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. শাহজাহান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আতাব উল্লাহ শাহনাজ বেগম, মাসুম মিয়াকে জামিন ও শিশু মাহাদীকে মুক্তির আদেশ দেন।

আইনজীবীদের কাছ থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর কুমিল্লা নগরীর মনোহরপুর এলাকায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন আয়েশা আক্তার রীমা নামের এক নারী। ওই ঘটনায় স্বামী নাসির উদ্দিন, নাসিরের ভাই মাসুম মিয়া ও তার স্ত্রী শাহনাজ বেগমকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন রীমার বাবা।

মামলায় আসামি পক্ষের আইনজীবী মো. তাজুল ইসলাম জানান, ১৯ অক্টোবর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন শাহনাজ ও মাসুম মিয়া। এ সময় তাদের জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেয় আদালত। তাদের দুই দিনের রিমান্ডেও নেয়া হয়।

তিনি আরও জানান, রীমার স্বামী নাসির উদ্দিনকেও দুই দিন আগে জামিন দিয়েছে আদালত।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: