কুমিল্লায় জ্বরে আক্রান্ত হয়ে দিনমজুর সফিক মিয়ার (৫৫) মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সদর দক্ষিণ উপজেলার বিজয়পুর স্কুলের একটি কক্ষে তার মৃত্যু হয়। তার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় বলা হলেও বিস্তারিত ঠিকানা পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম আহম্মেদ জানান, করোনাভাইরাসের প্রভাবে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কুমিল্লায় কাজ করতে আসা বিভিন্ন জেলার ৬৫ জন দিনমজুর সদর দক্ষিণ উপজেলার বিজয়পুর স্কুল মাঠে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান নেন।

বিষয়টি জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর জানতে পেরে তাদের স্কুলভবনে থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা নিতে সদর দক্ষিণ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন। এরই মধ্যে সফিক নামের একজন জ্বর রোগে আক্রান্ত হন। তাকে সদর দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। সোমবার তার মৃত্যু হয়। শুনেছি তিনি বাড়ি থেকে রাগ করে এসেছেন। অন্যরা তার বাড়ির ঠিকানা জানেন না।

সদর দক্ষিণ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিয়া কেয়াম উদ্দিন জানান, তার শরীর দুর্বল ছিল। শরীরে জ্বর ছিল। পূর্ণাঙ্গ ঠিকানা পাওয়া যায়নি। তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা জানতে নমুনা ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। লাশ দাফনের জন্য আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামে পাঠানো হয়েছে।

আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলাম কুমিল্লার সহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, সদর দক্ষিণ থানা লাশ নিয়ে আসে। ডেথ সার্টিফিকেটে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কথা বলা হয়েছে। আমাদের সুরক্ষার সামগ্রী নেই। তার মধ্যেও রাতে ওই ব্যক্তির লাশ দাফন করেছি।

সূত্রঃ বিডি প্রতিদিন

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: