বাড়ির পাশের প্রিয়তমাকে ভালোবেসে বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করেছিলেন এমরান নামের এক যুবক। বিরাট আয়োজনে শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) এই বিয়ের কাজও সম্পন্ন হয় তাদের। কিন্তু সেই সুখ আর ধরা দেয়নি এমরানের।

বিয়ের পরদিন শনিবার ছিল বৌভাত। আত্মীয়-স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশী ও বন্ধু-বান্ধবদের অংশগ্রহণে দুপুরে চলছিল প্রীতিভোজ পর্ব। এমরানের বিয়ে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিতদের অংশগ্রহণ ছিল ভরপুর। হঠাৎ বাবুর্চি জানায় গরুর মাংসের স্বল্পতার কথা।

মেহমানদারীতে মাংসের স্বল্পতায় দিশেহারা হয়ে পড়ে এমরান। মোটরসাইকেল নিয়ে চান্দিনা-বদরপুর সড়কের বাড়েরা নামক এলাকায় পৌঁছামাত্র বিপরীত দিক থেকে আসা সিমেন্টবাহী ট্রাকের সঙ্গে সংঘ’র্ষ হয়। এতেই গুরুতর আ’হত হন এমরান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

এমরান চান্দিনা উপজেলার মহিচাইল উত্তরপাড়া গ্রামের মনু মিয়ার ছেলে। তিনি পেশায় সিএনজি অটোরিকশা চালক। পাঁচ ভাই ও তিন বোনের মধ্যে সবার ছোট এমরান।

বড় ভাই জুয়েল জানান, একই গ্রামের শিউলী নামে এক মেয়েকে ভালোবাসে আমার ভাই এমরান। তাদের ভালোবাসা দেখে ভালোবাসা দিবসেই (শুক্রবার) তাদের বিয়ে দেই। আর বৌভাতের দিনই এমন শোক সইতে হবে তা আমাদের জানা ছিল না।

এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল ফয়সল বলেন, নি’হতের পরিবারকে বলেছি অভিযোগ দিতে। ঘা’তক ট্রাকটি আটক আছে। চালক পলাতক।