কুমিল্লায় ১৮ বছরের এক যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গেল বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে আদর্শ সদর উপজেলার বারপাড়া এলাকায়। গতকাল শুক্রবার রাতে এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

মামলার বিবরণে উল্লেখ করা হয়, গেল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নির্যাতিতা তার গ্রামে থাকা বাবার সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে একটি খালি মাঠের দিকে চলে যান। এ সময় পেছন দিক থেকে আনিছ নামের একজন মোবাইলে কার সঙ্গে কথা বলছে এ বিষয়ে জানতে চেয়ে খারাপ ইঙ্গিতপূর্ণ কথাবার্তা বলতে থাকে।

একপর্যায়ে তার কাছ থেকে মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা কেড়ে নেয়। পরে মেয়েটিকে পেন্টের বেল্ট খুলে পিটিয়ে আহত করে। এরপর নির্যাতিতার ভাড়াটিয়া ঘরে নিয়ে রাত পৌনে নয়টার দিকে জাবেদ, মিঠু ও সজিব নামের তিনজনের সহযোগিতায় আনিছ তাকে ধর্ষণ করে।

এরপর নির্যাতিতাকে হুমকি দেয়া হয় ঘটনার কথা কাউকে জানালে তাকে প্রাণে মেরে ফেলা হবে। পরে নির্যাতিতাকে অচেতন অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এনে ভর্তি করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নির্যাতিতা সদর উপজেলার বারপাড়া এলাকায় ভাড়াটিয়া বাসায় থেকে বিভিন্ন বাসায় ঝিয়ের কাজ করতো এবং তার বড় ভাই ইটভাঙার কাজ করে।

অভিযুক্ত ধর্ষক আনিছ এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধে একাধিক মামলা রয়েছে বলেও জানান স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে নির্যাতিতার বড় ভাই বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে গতকাল শুক্রবার কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছেন। কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল হক মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় এখনও কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে অভিযান চলছে।

সূত্রঃ আরটিভি

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: