ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা সদর উপজেলার কালিরবাজার ইউনিয়নের বল্লভপুর গ্রামের দুবাই প্রবাসী রিয়াদ হোসেনের বাড়ি থেকে তার স্ত্রী মিতু (২১)’র ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ ।

বৃহস্পতিবার বিকালে এঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ২০১৮ সালের প্রথম দিকে পারিবারিক ভাবে বল্লভপুর গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে রিয়াদের সাথে চান্দিনা ছায়কোট গ্রামের আব্দুছ সালামে মেয়ে মিতুর বিয়ে হয়। বিয়ের এক বছরের মাথায় মিতু প্রগনেন্ট হয় শুনে স্বামী রিয়াদ ও তার মা মিলে বাচ্চাটিকে নষ্ট করে ফেলে ।

যৌতুকের জন্য মেয়েটির উপর অত্যাচার শুরু করে । এক প্রর্যায়ে মেয়েটির বাবা দিন মজুর সালাম মেয়েটির স্বামীর বাড়ীর ঘরের আসবাব পত্র পাঠায় । এর কিছুদিন পর স্বামী রিয়াদ দুবাই চলে গেলে শাশুড়ী আর দেবর মিলে মেয়েটির উপর আবার অত্যাচার শুরু করে । মেয়েটি অত্যাচারের বিষটি তার বাবা সালাম কে জানা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে কোতোয়ালি থানাধীন নাজিরা বাজার পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ এসে মেয়েটিকে ঘরের ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে । মেয়েটির বাবা মামলা করতে চাইলে পুলিশ মামলা নেয়নি ।

এ বিষয়ে নাজিরা বাজার পুলিশ ফাঁড়িতে যোগাযোগ করলে জানান । তাদের কাছে এটি আত্যাহত্যা মনে হয়েছে । তাই তারা মামলা নেয়নি । আদরের মেয়েকে হারিয়ে পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে ।

মেয়েটির বাবা আব্দুস সালাম বলেন, আমার মেয়েকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে । আমি আমার মেয়ে হত্যার বিচার চাই ।