ডেস্ক রিপোর্টঃ ইউটার্নের দুই পাশে উত্তর ও দক্ষিণে দুটি লিংক রোড রয়েছে। লিংক রোডের পরিবহনগুলোও ইউটার্ন ব্যবহার করে। এ ছাড়া ব্যস্ততম এই প্রধান মহাসড়ক দিয়ে প্রতি মিনিটে শত গাড়ি চলাচল করে

কুমিল্লা নগরীর পদুয়ার বাজার বাইপাসের ইউটার্ন দিন দিন ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে। এটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে অবস্থিত। কিছুদিন আগে এই পয়েন্টে এক সপ্তাহের মধ্যে পাঁচজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া প্রায়ই দুর্ঘটনায় যাত্রী-পথচারী আহত হচ্ছে।

২২ সেপ্টেম্বর চৌয়ারা থেকে কুমিল্লা শহরগামী একটি মাইক্রোবাসের সঙ্গে বিপরীতমুখী একটি পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনায় মাইক্রোবাস আরোহী সদর দক্ষিণ উপজেলার চৌয়ারা ইউনিয়নের হিরাপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেন ও তার স্ত্রী শিল্পী আক্তার নিহত হন। আহত হন ৭ জন। এদিকে ১৫ সেপ্টেম্বর একই স্থানে রং সাইডে আসা শ্যামলী পরিবহনের একটি বাসের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী তিন ছাত্রলীগ কর্মী নিহত হয়েছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ইউটার্নের দুই পাশে উত্তর ও দক্ষিণে দুটি লিংক রোড রয়েছে। লিংক রোডের পরিবহনগুলোও ইউটার্ন ব্যবহার করে। এ ছাড়া ব্যস্ততম এই প্রধান মহাসড়ক দিয়ে প্রতি মিনিটে শত গাড়ি চলাচল করে।

সেই গাড়িগুলোর গ্যাপে নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর ও চাঁদপুর রুটের পরিবহনগুলো বাম লেন থেকে ডান লেনে প্রবেশ করে। এখানে কোনো ট্রাফিক ব্যবস্থাও নেই যে, এক পাশের গাড়ি যাওয়া শেষ হলে অন্যগুলো ছাড়বে। কে কার আগে যাবে তা নিয়ে একটি বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। এদিকে মহাসড়কের অধিকাংশ গাড়ি ইউটার্নে এসেও গতি কমায় না। ইউটার্নের একটু পশ্চিমে রেলওয়ে ওভারপাস। সেটিকে ফেনীর মতো বড় করলে এখানকার দুর্ঘটনার ঝুঁকি দূর হয়। এদিকে মহাসড়কের আইল্যান্ডের কারণে পদুয়ার বাজারের দুই পাশের ব্যবসারও ক্ষতি হচ্ছে। সহজে এক পাশের লোকজন অন্য পাশে যেতে পারে না। একটি ফুট ওভারব্রিজ করা হলেও তা যথাযথ নয়।

বিভিন্ন ত্রুটির কারণে অনেকে ফুট ওভারব্রিজ ব্যবহার করতে চান না।

পদুয়ার বাজারের ব্যবসায়ী শাহ ফয়সাল কারীম বলেন, পদুয়ার বাজারে ফ্লাইওভার না হওয়ায় দুর্ঘটনা আর যানজট বাড়ছে। সঙ্গে ব্যবসায়ীরাও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হাই বাবলু বলেন, ইউটার্নটি ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে। এখানে দ্রুত ফ্লাইওভার করা প্রয়োজন। তাতে যানজট ও দুর্ঘটনার ঝুঁকি কমবে। হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা রিজিয়নের পুলিশ সুপার মো. নজরুল ইসলাম বলেন, পদুয়ার বাজার ইউটার্নে বিভিন্ন সময়ে দুর্ঘটনা ঘটছে।

দুর্ঘটনা রোধে সড়ক ও জনপথ বিভাগ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ কুমিল্লার নির্বাহী প্রকৌশলী ড. মো. আহাদ উল্লাহ বলেন, আমরা ইউটার্নের পাশে ইউলুপ করে দিব। এ ছাড়া সচেতনতামূলক সাইনবোর্ড দেওয়া হবে।

সূত্রঃ বিডিপ্রতিদিন