গোলাম কিবরিয়াঃ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থীর দুই মাসের অক্লান্ত পরিশ্রমে মাত্র ৩৮ হাজার টাকায় তৈরি আলোচিত রোবট ‘সিনা’।

রোবটটি মানুষের মতো দেখতে। কথাও বলে মানুষের মতো। সবাইকে চমকে দেওয়া রোবটটি তৈরি করেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে অধ্যয়নরত শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামারী গ্রামের ছেলে সনজিত মন্ডল।তার ছোটবেলা থেকেই রোবট তৈরির স্বপ্ন ছিলো । কিন্তু সামর্থ্য না থাকায় হয়ে উঠেনি। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে টিউশনির টাকা দিয়ে চলতে হতো তাকে। টিউশনির টাকা বাঁচিয়ে একসময় ছোট রোবট তৈরি করেন। তা নিয়ে বিভিন্ন প্রদর্শনীতে অংশও নেন। সেখান থেকে শুরু স্বপ্ন বুনার। কুমিল্লায় ভাড়া বাসায় নিজেই ল্যাব তৈরি করেন তিনি। সারাদিন ক্লাস আর সন্ধ্যায় টিউশনি করিয়ে রাতে ল্যাবে কাজে মগ্ন থাকতেন তিনি। অবশ্য ল্যাবের ড্রিল মেশিনের শব্দে বাড়ি ছাড়ার নোটিশও পায় সে। কিন্তু দমে যাননি। কাজ চালিয়ে যান। অবশেষে ছোটবেলার স্বপ্নকে সত্যি করে তৈরি করেন রোবট ‘সিনা’।রোবটটি তৈরি করতে সনজিতের সাথে ছিল পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র সাঈয়েদুর রহমান ও আইসিটি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র জুয়েল নাথ।

রোবট সিনাকে ১০৫৩ লাইনের আর্ডুইনো কোড দ্বারা তৈরি করা হয়েছে। যাকে মোবাইল সফটওয়্যারের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। যার ফলে রোবট সিনা মানুষের মত কথা বলার পাশাপাশি সামনে পিছনে সবদিকে চলতে পারে।রোবট ‘সিনা’কে বর্তমানে কুমিল্লার কোটবাড়িতে অবস্থিত বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমির লাইব্রেরিতে প্রদর্শনের জন্য রাখা হয়েছে।

প্রতিদিন বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা ও স্থানীয় উৎসুক জনতা রোবটটি দেখতে এখানে ভিড় জমায়।বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমির (বার্ড) অর্থায়নে ও কুমিল্লা ইউনিভার্সিটি সায়েন্স ক্লাবের সহায়তায় মাত্র দুই মাসে রোবটটি তৈরি করা হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে রোবটটি পল্লী উন্নয়ন একাডেমিতে হস্তান্তর করা হয়।