নিজস্ব প্রতিবেদকঃ অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, ট্রাফিক ফাইন আদায়, মামলা তদন্তে সফলতাসহ অপরাধ দমনে পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে কুমিল্লা জেলা পুলিশ। ১৩ ক্যাটাগরীর মধ্যে কুমিল্লা জেলা পুলিশ রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপারসহ ৭টিতেই প্রথম স্থান অর্জন করায় সন্মাননা ক্রেষ্ট ও সনদপত্র লাভ করেছে।

জানা যায়, সোমবার পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্¦ করেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বিপিএম পিপিএম। কুমিল্লা জেলায় অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, ট্রাফিক ফাইন আদায়, মামলার তদন্তে সফলতাসহ অপরাধ দমনে বিশেষ অবদানের কারণে কুমিল্লা জেলা পুলিশ ১৩টি ক্যাটাগরীর মধ্যে ৭টিতে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে। এর মধ্যে কুমিল্লার বিদায়ী পুলিশ সুপার মোঃ শাহ আবিদ হোসেন বিপিএমকে রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপার হিসেবে সন্মাননা ক্রেষ্ট পুরস্কার ও সনদপত্র প্রদান করা হয়। এছাড়াও একই সভায় চট্টগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর সালেহীন ইমন পিপিএম। অন্যান্য ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার লাভ করেছেন শ্রেষ্ঠ কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক সুব্রত ব্যানার্জী, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইউনিট কুমিল্লা সদর ট্রাফিক, শ্রেষ্ঠ ডিবি অফিসার এসআই(নিঃ) মোঃ শাহ কামাল আকন্দ পিপিএম, শ্রেষ্ঠ মাদকদ্রব্য উদ্ধারকারী অফিসার ও শ্রেষ্ঠ এসআই দাউদকান্দি মডেল থানার এসআই (নিঃ) মোঃ মোস্তফা কামাল এবং শ্রেষ্ঠ ডিএসবি ওয়াচার এসআই (নিঃ) বিশ্বজিৎ মল্লিক।

রেঞ্জে জেলা পুলিশের এ সফলতার বিষয়ে মুঠো ফোনে কুমিল্লার বিদায়ী পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেন জানান, অনেক স্মৃতি নিয়ে কুমিল্লা থেকে বদলী হয়ে ময়মনসিংহ জেলায় শিগগিরই যোগদান করবো। আমার নেতৃত্বে টিম কুমিল্লা ঐক্যবব্ধভাবে আমরা চেষ্টা করেছি কুমিল্লা ও কুমিল্লার মানুষকে শান্তিতে রাখতে। বিদায় মূহর্তে রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপার হিসেবে পুরস্কারসহ মোট ৭টি ক্যাটাগরীতে পুরস্কার লাভের মধ্য দিয়ে জেলা পুলিশের কার্যক্রম আরও বেগবান হবে। কুমিল্লার প্রতিটি মানুষকে সাথে নিয়ে জেলা পুলিশ আমার প্রিয় স্মৃতি বিজরিত কুমিল্লা জেলাকে সন্ত্রাস,মাদক ও জঙ্গীবাদমুক্ত রাখতে আরও কঠোরভাবে দায়িত্ব পালন করবে বলে আমি আশা করি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: