ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা ভূমি অফিস। ভূমির সমস্যা নিয়ে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত মানুষ যাতায়াত করে সেখানে। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে কাঙ্খিত সেবা পাওয়ার আশায় ভিড় করে এসব মানুষ। আগতদের পাদুকা বাইরে রেখে প্রবেশ করতে হয় ভেতরে।

যে কার্যালয়ের কথা বলা হচ্ছে, সেখানে ঘুষ ছাড়া ফাইল নড়ে না, এক টেবিল থেকে অন্য টেবিলে যেতে দিতে হয় অর্থ। আবার কার্যালয়ে পাদুকা নিয়ে প্রবেশ করলে ঘটে বিপত্তি। এমন অভিযোগ রয়েছে জনসাধারণের।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ে ৯ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োজিত। এর মধ্যে একজন পরিচ্ছন্নতাকর্মী। পরিচ্ছন্নতাকর্মী থাকার পরও কার্যালয়কে পরিচ্ছন্নতার অজুহাতে সেবা প্রত্যাশী মানুষকে জুতা নিয়ে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লায় জন্ম নিবন্ধন নিয়ে সীমাহীন দূর্নীতির অভিযোগ

সরেজমিনে ওই কার্যালয়ে দেখা গেছে, কার্যালয়ে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সবাই জুতা পায়ে অফিস করছেন। অথচ সেবাপ্রত্যাশী কেউ জুতা নিয়ে ভেতরে ঢুকলেই ঘটে বিপত্তি।

ভূমি অফিসে আসা ভুক্তভোগী দেলোয়ার হোসেন তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যে অফিসে ঘুষ ছাড়া এক টেবিল থেকে অন্য টেবিলে ফাইল যায় না। সেই অফিসে জুতা বাইরে রেখে ভেতরে প্রবেশ করতে হয়!

আরেকজন রবিউল আজম বলেন, জেলা প্রশাসক কার্যালয়, জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয় এমনকি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়েও জুতা খুলে প্রবেশ করতে হয় না। কিন্তু আজব চান্দিনা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়! সেখানে জুতা খুলেই কার্যালয়ে প্রবেশ করতে হয়!

নাম প্রকাশ না করা শর্তে চান্দিনার কেরনখাল ইউনিয়নের ছয়ঘড়িয়া গ্রামের এক বাসিন্দা বলেন, আমার জমি খারিজ করার জন্য ১৩ হাজার টাকা দিতে হয়েছে। ওই কার্যালয়ে নাকি জুতা খুলে প্রবেশ করতে হয়। জুতা বাইরে রেখে প্রবেশ করলেও ঘুষ দুর্নীতি আবর্জনায় নোংড়া হয়ে আছে পুরো অফিস।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লা নগরী পানিবন্দি, জনদুর্ভোগ চরমে

রফিকুল ইসলাম নামের ভুক্তভোগী বলেন, গত রবিবার (১৬ জুন) আমার আত্মীয়ের এক জমা খারিজের জন্য কথা বলতে যাই ওই কার্যালয়ে। কার্যালয়ে প্রবেশ করে নাজিরের কক্ষে গেলে নাজির শামীমা আক্তার আমাকে অপমানজনক কথা বলে জুতা বা‌ইরে রেখে আসতে বলেন।

চান্দিনা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাঈমা ইসলাম বলেন, মূলত কার্যালয়কে পরিচ্ছন্ন রাখতে এ ব্যবস্থা। কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জুতা পায়ে অফিস করছেন?-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘পরিষ্কার জুতা পায়ে দিয়ে অফিস করছেন সবাই।’

সূত্রঃ কালেরকন্ঠ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ