বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিঃ-এর হোম ভেন্যু কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়াম। মোহামেডান দলের সব খেলা হবে এ মাঠে। আগামী ৭ মার্চ বসুন্ধরা কিংসের সঙ্গে বিপিএলের প্রথম খেলা মোহামেডানের।

কুমিল্লা স্টেডিয়াম এখন বিপিএল খেলার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। সেই সঙ্গে কুমিল্লায় মোহামেডান ফুটবল দলকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত জেলার ক্রীড়াপ্রেমীসহ সকল বাসিন্দা।

নগরীর শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে বিপিএলের ১২টি খেলা অনুষ্ঠিত হবে। ঘরোয়া ফুটবলের সর্বোচ্চ লিগ বিপিএলের এ খেলাকে কেন্দ্র করে কুমিল্লার এ ঐতিহ্যবাহী স্টেডিয়ামের ব্যাপক সংস্কার করা হয়েছে। এদিকে বিপিএলের এ ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে কুমিল্লার ক্রীড়া সংগঠক এবং ক্রীড়াপ্রেমীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। সব কটি খেলাকে আনন্দঘন এবং উৎসব মুখর করতে জেলা ক্রীড়া সংস্থা, জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন এবং স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

অপরদিকে বিপিএলের এসব খেলায় খেলোয়াড়সহ সবার নিরাপত্তায় আগে থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

জানা গেছে, কুমিল্লা নগরীর প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়াম। রাজা ধর্ম মাণিক্যের স্মৃতিবিজড়িত ধর্ম সাগরের পাশে মনোরম পরিবেশে অবস্থিত এ স্টেডিয়ামে দর্শকরা খেলা দেখার পাশাপাশি প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ হয়েছে প্রতিনিধি দলের সদস্যগণ। স্টেডিয়ামের পশ্চিম পাশে ধর্মসাগর, অবস্থানগত দিক থেকে স্টেডিয়ামটিতে রয়েছে যেমন নিরাপত্তা তেমনি চারপাশে রয়েছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। সব দিক বিবেচনা করেই মোহামেডানের পছন্দ কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়াম। বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবলের সর্বোচ্চ লিগ বিপিএলের ১২টি ম্যাচ খেলার জন্য দেশের ঐতিহ্যবাহী মতিঝিল পাড়ার ক্রীড়া সংগঠন মোহামেডান ফুটবল দল তাদের মূল হোম ভেন্যু হিসেবে কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামকে বেছে নিয়েছে। এতে জেলার ক্রীড়া সংগঠক ও ফুটবলপ্রেমীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। এ ছাড়া কুমিল্লায় রয়েছে মোহামেডানের অগণিত দর্শক।

ইতোমধ্যে বাফুফের একটি দল বাদল রায়ের নেতৃত্বে স্টেডিয়াম পরিদর্শনও করেছেন। তারা এ স্টেডিয়ামের পরিবেশ দেখে মুগ্ধ হয়েছেন।

বাফুফের সহ-সভাপতি বাদল রায় বলেন, ক্রীড়া ক্ষেত্রে কুমিল্লা ঐতিহ্যবাহী জেলা। স্টেডিয়ামের অবকাঠামো এবং মাঠ খেলার জন্য প্রস্তুত বলে জানান তিনি।

এ উপলক্ষে স্টেডিয়ামের ব্যাপক সংস্কার করা হয়েছে। আধুনিক গ্যালারি, প্যাভিলিয়ন, মিডিয়া বক্সসহ প্রয়োজনীয় সব কিছুই সংযোজন করা হয়েছে। ১৮০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১৩২ ফুট প্রস্থের এ স্টেডিয়ামে ২০ হাজার দর্শক একসঙ্গে খেলা উপভোগ করতে পারবেন। এদিকে মোহামেডানের ঘরের মাঠ হওয়ায় ব্যস্ত সময় পার করছে স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ।

কুমিল্লা জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আবুল ফজল মীর বলেন, বিপিএলে কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়াম মোহামেডানের হোম ভেন্যু হওয়ায় কুমিল্লা ফুটবলেরও উন্নয়ন হবে।

ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আরফানুল হক রিফাত বলেন, ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান ফুটবল দলকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত কুমিল্লাবাসী। আমরা সকলকে নিয়ে বিপিএলের খেলাগুলো সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে পারব।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান ফারুক রোমেন বলেন, অবকাঠামো, মাঠ সকল দিক থেকে পরিপূর্ণ অবস্থায় আছে কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়াম।

সাবেক ফুটবলার প্রণব কুমার দে বানু বলেন, ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান ফুটবল দল তাদের নিজস্ব ঘরের মাঠ হিসেবে কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামকে বেছে নেওয়ার কারণে কুমিল্লার সাবেক বর্তমানসহ সব ফুটবলার এবং ক্রীড়ার সঙ্গে জড়িত সবাই আনন্দিত। সেই সঙ্গে এ আয়োজনের জন্য কুমিল্লাও ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকল।

সূত্রঃ আমাদের সময়