বুড়িচং প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার মোঃ জসিম উদ্দিন’কে মঙ্গলবার রাতে মাইক্রোবাস চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায় সন্ত্রাসীদল। ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেলেও বর্তমানে গুরুতর আহত অবস্থায় ময়নামতি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে তিনি। এ ঘটনায় ১ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামী করে বুড়িচং থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের হাজী মোঃ ফরিদ উদ্দিনের ছেলে ইউপি সদস্য মোঃ জসিম উদ্দিন মেম্বার (৪২) মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টায় দেবপুর বাজার থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ী যওয়ার পথে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের হরিণধরা এলাকায় পৌছালে পিছন থেকে একটি মাইক্রোবাস তাঁকে ধাক্কা দিয়ে মোটরসাইকেলসহ রাস্তায় ফেলে দেয়। এসময় জসিম মেম্বার উঠার চেষ্টা করলে মাইক্রোবাসটি পিছনে গিয়ে পুনরায় তাঁকে চাপা দেয়। এতে জসিম মেম্বার পাশের জমিতে পরে যায়। জসিম মেম্বারের আত্মচিৎকারে মহাসড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় একটি লেগুনা থামিয়ে লোকজন এগিয়ে আসলে মাইক্রোবাসটি দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে ময়নামতি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। বর্তমানে জসিম মেম্বার গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় তাঁর ছোট ভাই মোঃ মহসিন বাদী হয়ে কোতয়ালী থানাধীন সাতোরা এলাকার মোঃ রনি (৩০) এর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জনকে আসামী করে বুড়িচং থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।