নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সৎ মা টাকা চুরির মিথ্যে অপবাদ দেয়ায় রাগে ক্ষোভে অভিমান করে স্কুল থেকে বাড়ী ফেরার পথে কেরির বড়ি খেয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে হাসপাতালে নেবার পথে ৭ম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের জামতলি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পারিবারিক ও থানা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জামতলি গ্রামের প্রবাসী জাকির হোসেনের মেয়ে সানজিদা আক্তার (১৩) তার সৎ মা আঞ্জুমান আক্তারের সাথে তার বাবার বাড়িতে থাকত। সে চান্দলা কেবি স্কুল এন্ড কলেজের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী ছিল। তার বড় ভাই বাবার সাথে সৌদি আরব এবং ছোট ভাই মাদ্রাসা হোষ্টেলে থেকে লেখাপড়া করে। বাড়ীতে মাটির ভরাটের কাজ চলছিল। প্রতিদিনের মত মঙ্গলবার সকালে লেবারের টাকা দিতে গিয়ে ১ হাজার টাকা খোজে না পেয়ে সানজিদার সৎ মা তাকে সন্দেহ করে অনেক গালমন্দ করাসহ এক পর্যায়ে চর থাপ্পর মারে। এ নিয়ে সানজিদার মনে অনেক আঘাত লাগে। অন্য দিনের মত ওই দিন সকালে সে স্কুলে চলে আসে। স্কুল থেকে ফেরার পথে চান্দলা বাজার থেকে সে কেরির বড়ি কিনে এবং তা খেয়ে ফেলে। বিকাল ৪ টায় বাড়ীর সামনে পৌছামাত্রই সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। সাথে সাথে বাড়ীর লোকজন তাকে প্রথমে ব্রাহ্মণপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পড়ে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করে। ওই রাতেই লাশ বাড়িতে ফিরিয়ে আনা হয়।

বুধবার সকালে ব্রাহ্মণপাড়া থানার পুলিশ খবর পেলে থানার এসআই তীথংকর দাস ও সঙ্গীয় ফোর্স লাশের বাড়ীতে পৌছে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করে। ময়না তদন্তের পর বিকালে লাশ বাড়িয়ে ফিরিয়ে এনে নামাজে জানাযা শেষে তাকে তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এব্যাপারে নিহতের চাচা নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করেছে। থানার ওসি এসএএম শাহজাহান কবির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: