কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন শ্রীকাইলে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস পৌছার আগেই আগুনে ১টি বসতঘরসহ ঘরে থাকা সকল মালামাল সম্পূর্ন ভাবে পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টার দিকে শ্রীকাইল গ্রামের (দক্ষিণ পাড়ার) মুকবুল মিয়ার ছেলে মফিজ মিয়ার বাড়ীতে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় ৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের লোকজন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টার দিকে শ্রীকাইল গ্রামের মফিজ মিয়ার বসতঘরে আগুনের সূত্রপাত হয়ে মুহূর্তের মধ্যেই আশ-পাশে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় স্থানীয় লোকজনের কাছে ফায়ার সার্ভিসের নম্বর না থাকায় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করা হয়। জরুরি সেবা নম্বর থেকে খবর পেয়ে মুরাদনগর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছানোর আগেই স্থানীয় লোকজন আশ-পাশের বসতঘর গুলো বাঁচাতে পাড়লেও ততক্ষণে কৃষক মফিজের বসতঘরসহ ঘরে থাকা স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা, ৮টি ড্রাম ভর্তি চাউল, ও সকল আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এ বিষয়ে মুরাদনগর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার বিল্লাল হোসেন জানান, আমরা সকাল ৯টা ৩৬ মিনিটে জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ থেকে আগুন লাগার বিষয়ে জানতে পেরে ১ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে বেড়িয়ে পরি। যেহেতু নবীপুর-শ্রীকাইল সড়কের সংস্কার কাজ চলছে তারপরেও আমরা প্রায় ২৩ কিলোমিটার পথ ৩৪ মিনিটে অতিক্রম করে ঘটনাস্থলে পৌছাই। কিন্তু ততক্ষনে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেছে। আগুন লাগার সাথে সাথে যদি সরাসরি আমাদেরকে জানানো হতো হাতলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান আরো কম হতো। প্রাথমিক ভাবে বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।