করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে যখন অর্থ ও শ্রমিক উভয় সংকটে দিশেহারা চাষীরা। সেই সংকটময় সময়ে মুরাদনগরে স্থানীয় সংসদ সদস্য ইউসুফ আব্দুল্লাহ হারুন (এফসিএ)’র নির্দেশে রোজা রেখেও প্রতিদিন অসহায় দরিদ্র কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে হ্যালো ছাত্রলীগ। মুরাদনগর উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক ফয়সাল আহম্মেদ নাহিদের নেতৃত্বে প্রতিদিনই উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে বিনা পারিশ্রমিকে অসহায় দরিদ্র কৃষকের ধান কেটে তা মাড়াই করে দিচ্ছে। এছাড়াও নিম্ন ও মধ্যবিত্তরা হ্যালো ছাত্রলীগের নাম্বারে ফোন করলেই তাদের বাড়ী গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে একদল কর্মী।

বিজ্ঞাপন

এসব কর্মকান্ডে অংশগ্রহন করছেন মুরাদনগর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক বিল্লাল হোসেন, শফিক তুহিন, শরিফ খাঁন, মেজবাহ উদ্দিন, সদস্য মোঃ হাফিজ, রাজিব তুহিন।

মুরাদনগর উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক ফয়সাল আহাম্মেদ নাহিদ বলেন, মাননীয় এমপি ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন এফসিএ মহোদয়ের নির্দেশে আমাদের মুরাদনগর হ্যালো ছাত্রলীগের নাম্বারে দরিদ্র কৃষক ফোন করলে আমিসহ আমার কর্মীরা তার জমির ধান কেটে তা মাড়াই করে দিচ্ছি। আর যদি নিম্ন আয়ের কেউ ফোন করে তাহলে তার বাড়িতে খাদ্য সামগ্রী পাঠিয়ে দিচ্ছি। যতদিন বোরো মৌসুমে কৃষকের ধান কাটা শেষ না হবে ততদিন পর্যন্ত ধান কাটার কার্যক্রম অব্যহত থাকবে। অপরদিকে যতদিন পর্যন্ত করোনার প্রাদুর্ভাব থাকবে এমপি মহোদয়ের নির্দেশে নিম্ন আয়ের কেউ আমাদের ফোন করলে তার বাড়ীতে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে যাবে।