স্বামীর নির্যাতনের বলি সদর দক্ষিণের মরজিনা ,পাষন্ড স্বামী আটক

মাজহারুল ইসলাম বাপ্পিঃ কুমিল্লা সদর দক্ষিণের সুয়াগাজী কৃষ্ণপুর গ্রামে মরজিনা আক্তার (২৮) দুই সন্তানের জননীকে পিটিয়ে স্বামী মাসুদ হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে । এ ঘটনায় ঘাতক মাসুদ কে আটক করেছে সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশ।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার পশ্চিম জোড়কানন ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের মাসুদ দীর্ঘদিন যাবত তার স্ত্রী মরজিনার উপর শারীরিক ও মানষিক নির্যাতন চালিয়ে আসছে। শুক্রবার রাতে স্বামী মাসুদ মরজিনাকে কাঠ দিয়ে পিটিয়ে অজ্ঞান করে বিষপান করেছে বলে তার বাবার বাড়িতে খবর দেয়। মরজিনা আক্তার মহানগরীর উত্তর রামপুর পূর্বপাড়ার মৃত আবুল হোসেন মজুমদারের মেয়ে। খবর পেয়ে মরজিনার ভাই আঃ কুদ্দুস গিয়ে মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নেয়ার সে পথে মারা যায়। শনিবার ভোরে পাষন্ড স্বামী এ্যাম্বুলেন্স যোগে বাড়িতে ফেরার পথে বাবার বাড়ি অর্থাৎ উত্তর রামপুর এলাকার লোকজন লাশবাহি গাড়িসহ স্বামী এবং শ্বাশুড়িকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে শনিবার সকাল ১০ টায় সদর দক্ষিণ মডেল থানার এস.্আই খাদেমুল বাহার তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উত্তর রামপুর থেকে ঘাতক স্বামী ও শ্বাশুড়ীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। উত্তর রামপুর গ্রামের ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া জানান, গ্রামের মধ্যে মরজিনা মেয়েটি অত্যন্ত শান্ত ও ভদ্র প্রকৃতি স্বভাবের ছিল। স্বামীর নির্যাতনে শেষ পর্যন্ত মেয়েটিকে অল্প বয়সে জীবন দিতে হলো।এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ঘাতক স্বামীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। একই গ্রামের হাসান মজুমদার জানান, এলাকাবাসী ঘাতক স্বামীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে দোষী ব্যক্তির উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে সদর দক্ষিণ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম পি.পি.এম জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।