ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে খোরশেদ আলম নামে আওয়ামী লীগের এক কর্মীকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যার চেষ্টা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। বুধবার সন্ধ্যায় জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার চৌয়ারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিব্ধ খোরশেদ আলমকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গুলিবিদ্ধ খোরশেদ আলম চৌয়ারা কালিনগর এলাকার আলী আহম্মদের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সদর দক্ষিণের চৌয়ারা এলাকায় খাল থেকে মাটি বিক্রি ও মাছ ধরা এবং এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। গতকাল সন্ধ্যায় সেই বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের লোকজন আওয়ামী লীগ কর্মী খোরশেদ আলমেকে কুপিয়ে ও গুলি চালিয়ে মারাত্মক আহত করে। পরে তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসকরা জানান, খোরশেদ আলমের হাটুতে দুটি বুলেট বিদ্ধ হয়েছে। এ ছাড়াও তার শরীরে ধারালো অস্ত্রের একাধিক আঘাত রয়েছে।

আহত খোরশেদ জানান, সন্ধ্যা সাতটার দিকে চৌয়ারা বাজার এলাকায় আসলে স্থানীয় রায়পুর গ্রামের রুকু মিয়ার ছেলে ইমরানের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একটি দল অস্ত্র নিয়ে তার উপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে তাকে কুপিয়ে এবং পরে গুলি করে চলে যায় তারা।

সদর দক্ষিণ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, পূর্ব বিরোধের জের ধরে ওই বৃদ্ধের উপর হামলা হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: