কুমিল্লায় নাশকতার আশঙ্কায় আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের সতর্ক অবস্থান ও মহড়া

ডেস্ক রির্পোটঃ ভোলার বোরহান উদ্দিন উপজেলার সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে কুমিল্লায় অস্থিতিশীল পরিস্তিতি সৃষ্টিসহ নাশকতা হতে পারে এই আশঙ্কায় কুমিল্লার পুলিশ লাইন-রইেসকোর্স এলাকায় অবস্থান কর্মসূচি সহ শোডাউন করেছে আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, শ্রমিকলীগ সহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

দুপুরে পুলিশ লাইন এলাকায় পরে তিনটা থেকে চারটা পর্যন্ত রইেসকোর্স এলাকায় অবস্থান নেন তারা। এর আগে রেইসকোর্স এলাকা থেকে তিন নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সরকার মাহমুদ জাবেদের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা শোডাউন করে পুলিশ লাইন এলাকায় যান এবং কুমিল্লা সরকারি কলেজ গেট এলাকায় অবস্থান গ্রহণ করেন।

অন্যদিকে, উত্তর দূর্গাপুর ইউনিয়ন থেকে আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহমেদ নিয়াজ পাভেলের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী দুপুরে শাসনগাছা নৌকা অফিসে একত্রিত হয়ে শোডাউন করে পুলিশ লাইন এলাকায় এসে রইেসকোর্সের নেতাকর্মীদের সাথে একাত্বতা পোষণ করে অবস্থান গ্রহণ করেন। এর পর দুপুর তিনটার দিকে সম্মিলিতভাবে মিছির নিয়ে রইেসকোর্স ইস্টার্ণ প্লাজার উল্টা পাশে অবস্থান গ্রহণ করে বিকেল চারটায় কর্মসূচি শেষ করেন।

এ বিষয়ে কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহমেদ নিয়াজ পাভেল বলেন, ভোলার বোরহান উদ্দিন উপজেলার সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে জামায়াত শিবির অস্থিরতা ও নাশকতা করতে পারে এই আশঙ্কায় আমরা মাঠে নেমেছিলাম। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। অরাজকতা সৃষ্টি করার ব্যর্থ চেষ্টা করলেই প্রতিহত করা হবে।

মহানগর আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক কাউন্সিলর সরকার মাহমুদ জাবেদ বলেন, ফেইসবুক আইডি হ্যাক করে একটি স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে ভোলার বোরহান উদ্দিন উপজেলা রণক্ষেত্র হয়েছে। বিষয়টিকে ইস্যু করে কুমিল্লায় যাতে সুযোগসন্ধানী জামায়াত শিবির ও হেফাজতের কর্মীরা কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা ও অরাজকতা করতে না পারে সেজন্যই মূলত আমরা সতর্ক অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছি। অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে যেকোন মূল্যে প্রতিহত করা হবে।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ